1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৪৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
সুইডেনের আদলে ২০০ কি.মি. বৈদ্যুতিক সড়ক বানাচ্ছে ভারত শিগগির বিয়ে করতে যাচ্ছেন সিদ্ধার্থ-কিয়ারা! ই-কমার্স বন্ধ না করে প্রতারণা ঠেকাতে আইন করার তাগিদ ৪ মন্ত্রীর নরসিংদী পলাশে এক নারীর স্বর্ণ চুরি করতে গিয়ে ৭ নারী গ্রেফতার নলতায় জলাবদ্ধতা নিরসনে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করলেন তুফান গড়ইখালীর নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম কেরু’র নির্বাচন পরবর্তী শুভেচ্ছা বিনিময় কুলিয়ায় কয়েক হাজার নেতাকর্মী নিয়ে আছাদুল হকের মোটর শোভাযাত্রা দেবহাটার ওসি-সেকেন্ড অফিসারকে বদলী, ভারপ্রাপ্ত ওসি ফরিদ আহমেদ খলিশাখালি সহস্রাধিক বিঘা জমি দখলের ঘটনায় সরেজমিনে মামলার তদন্তে পিবিআই সাতক্ষীরায় তথ্য অধিকারের ওপর সচেতনতামূলক প্রচারণা বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

মতবিনিময় সভায় নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা উপকূলের টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করতে উপকূল উন্নয়ন বোর্ড গঠন করতে হবে

  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৬৩ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক : উপকূলের সুষম উন্নয়ন নিশ্চত করতে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানিয়ে নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা বলেছেন, উপকূলের টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করতে অবিলম্বে হাওড় উন্নয়ন বোর্ডের ন্যায় উপকূল উন্নয়ন বোর্ড গঠন করতে হবে।
আজ সোমবার খুলনায় অনির্বাণ লাইব্রেরি মিলনায়তনে নাগরিক সংগঠন ‘সুন্দরবন ও উপকূল সুরক্ষা আন্দোলন’ এবং বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা ‘ফেইথ ইন একশন’ আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় তারা এই দাবি জানান। সুন্দরবন ও উপকূল সুরক্ষা আন্দোলনের সমন্বয়ক নিখিল চন্দ্র ভদ্রের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন একাত্তর টেলিভিশনের যুগ্ম প্রধান বার্তা সম্পাদক পলাশ আহসান, সচেতন সংস্থার সাকিলা পারভীন, ফেইথ ইন একশনের তিমন বাড়ৈ, শিক্ষক নেতা কালিদাশ চন্ত্র চন্দ, গণেশ ভট্টাচার্য, সাহিদুর রহমান প্রমূখ।
সভায় বক্তারা বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাবের কারণে উপকূলীয় অঞ্চলে জনজীবনে সংকট প্রতিনিয়ত বাড়ছে। এরপর করোনা পরিস্থিতি এবং সুপার সাইক্লোন আম্ফান ও ইয়াসের আঘাত সংকট আরো বাড়িয়ে দিয়েছে। উপকূলের মানুষ ঘূর্ণিঝড়ের ক্ষত এখনো বহন করে বেড়াচ্ছে। আকাশে মেঘ দেখলেই ওই এলাকার জনমনে আতংক দেখা দেয়। এই আতংক থেকে রক্ষায় উপকূলে টেকসই বাঁধের পাশাপাশি দীর্ঘ মেয়াদী কর্মপরিকল্পনা নিতে হবে।
তারা বলেন, বেড়িবাঁধ রক্ষণাবেক্ষণ এবং অবৈধভাবে চিংড়ির ঘের যেন না হয় তার জন্য স্থানীয় জনগণকে নিয়ে কমিটি গঠন করতে হবে। পাশাপাশি উপকূল অঞ্চলে আর্থ সামাজিক উন্নয়নে একটি পৃথক বোর্ড দরকার। কিছু দিন আগে উপকূলের সমস্যা নিয়ে জাতীয় সম্মেলন হয়েছে। সেই জাতীয় সম্মেলন থেকে একটি উপকূল উন্নয়ন বোর্ড গঠনের দাবি উঠেছে।’
সভায় উত্থাপিত সুপারিশে বলা হয়, সরকারের উন্নয়নের ছোঁয়া সারাদেশের ন্যায় উপকূলীয় এলাকায় পৌছালেও টেকসই বেড়িবাঁধের অভাবে তা আজ ঝুঁকির মুখে। তাই টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণে বিশেষ বরাদ্দ রাখতে হবে। বাঁধ রক্ষণাবেক্ষণে বিশেষ তহবিল গঠন করতে হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ