1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৪৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কাশেমপুরে মাদানী জামে মসজিদের ছাদ ঢালাইয়ের উদ্বোধন দৈনিক দৃষ্টিপাত পত্রিকার সম্পাদকের সহধর্মীনির অকাল মৃত্যুতে সাতক্ষীরা সাংবাদিক ইউনিয়নের শোক কলারোয়ার যুগিখালীতে ৪র্থ বার বিনা প্রতিন্দীতায় নির্বাচিত ইউপি সদস্য মফিজুল ইসলাম দৈনিক দৃষ্টিপাত পত্রিকার সম্পাদকের সহধর্মীনির অকাল মৃত্যুতে এমপি রবি’র শোক ছোট ভাইকে উদ্ধারের দাবীতে বড় ভাইয়ের সংবাদ সম্মেলন সাতক্ষীরায় ওর্য়াড পুলিশিং কমিটির সভা অনুষ্ঠিত দেবহাটা প্রেসক্লাবের বার্ষিক সভায় বর্তমান কমিটির মেয়াদ বর্ধিত; সদস্য অন্তর্ভূক্তির লক্ষ্যে উপ-কমিটি খলিশাখালি দখলের এক সপ্তাহ; জমি পুনরুদ্ধারে দখলচ্যুত মালিকদের সংবাদ সম্মেলন জেলা আলীগের সাধারন সম্পদক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নজরুল ইসলামের সাথে সাংবাদিক ইউনিয়নের শুভেচ্ছা বিনিময় খলিশাখালিতে প্রতিবাদ সমাবেশ, প্রশাসনের সহযোগীতা চান ভূমিহীনরা

কালিঞ্জের চম্পাফুলে ভূমিহীন বিধবাকে মারপিট, বাড়ি ভাংচুর ও উচ্ছেদের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলনে

  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৭৯ বার পড়া হয়েছে
সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : কালিঞ্জের চম্পাফুলে ভূমিহীন এক বিধবা অসহায় নারীকে মারপিট, বাড়ি ভাংচুর পূর্বক উচ্ছেদের  অভিযোগ উঠেছে। বুধবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের আব্দুূল মোতালেব মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন কালিগঞ্জের বারদহা গ্রামের মৃৃত মনিরুল ইসলামেন স্ত্রী জাহানারা খাতুন । লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন আমি ২০/২৫ বছর পূর্বে স্বামী পরিত্যাক্তা হয়ে বৃদ্ধা মাতা ও দুই সন্তান নিয়ে কালিগঞ্জের বারদহা এলাকায় ঘর নির্মাণ করে বসবাস করে আসছি।



সম্প্রতি পুত্র সন্তানের বিবাহ দেওয়ার জন্য আরেকটি ঘর নির্মাণের চেষ্টা করতে গেলে নজর পড়ে এলাকার একটি কুচক্রী মহলের। তারা চাম্পাফুল ইউপি চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক মোজামকে দিয়ে উক্ত ঘর নির্মাণে বাধা প্রদান করেন। এক মাত্র ছেলে আবু সাদেক ও একমাত্র মেয়ে আফরোজাকে নিয়েই আমার সংসার। দ্বীন মজুরী করেই সংসার চলে। মেয়েটি ইতোমধ্যে বিয়ে দিয়েছি আর ছেলেটির বিয়ে দেওয়ার জন্যই ঘরটি তৈরি করছিলাম।



মাস খানেক আগে ঘর করার শুরুতেই স্থানীয় প্রতিবেশি প্রতিপক্ষরা পেছনের এক ঘর বাসিন্দার জন্য চলাচলের রাস্তা বন্ধ হবে এমন আশংকায় কাজে বাঁধা দেয়। শুধু তাই নয়, গত ৫ আগস্ট ঘরের কাজ করার সময় প্রতিবেশি রেজাউল সরদার, উজ্জল, রাজু , মারুফা বেগম, রোকেয়া বেগম ও রুপা খাতুনসহ তার পরিবারের উপর হামলা ও মারপিট করে।


এঘটনায় কালিগঞ্জ থানায় অভিযোগ দিলে পুলিশি তদন্তে ঘটনার সত্যতা পেলেও চেয়ারম্যানের কারণে মামলা নেয়নি। এরপর ফের ঘরের কাজ শুরু করলে তারা পানি উন্নয়ন বোডের এসওকে জানায় এবং চেয়ারম্যানের নির্দেশে দিন রাত সেখানে দফাদার ও চৌকিদারসহ অন্যান্য লোকজন বসিয়ে রাখে। গত ৩১ আগস্ট মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে এসও আব্দুল খালেকের নির্দেশে তারই কার্য সহকারি জয়ন্ত দাঁড়িয়ে থেকে চাম্পাফুল ইউনিয়নের দফাদার তপন কুমার দে, চৌকিদার শীবপদ সরকারসহ স্থানীয় প্রতিপক্ষরা নির্মিত আংশিক পাকা ঘর ভেঙে গুড়িয়ে দেয়।



তার নির্দেশে স্থানীয় প্রতিপক্ষ রেজাউল, আবুল, উজ্জল, নজু, রেবেকা, মারুফা ও রুপাসহ অনেকেই ঘর ভাঙার কাজে অংশ নেয়। দফাদাররা আমার কাছে চাঁদা দাবি করে বলেছিল টাকা দিলে আমার এখানে আসবো না। এছাড়া এসও খালেক ও জয়ন্ত দুইজনে একলক্ষ টাকা চেয়েছিল। টাকা দিলে তারা আর এখানে আসবো না। আমি টাকা দিতে না পারায় আমার বাড়ি ঘর ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়েছে।



চেয়ারম্যান মোজাম নিজেই কালিগঞ্জের উজিরপুর বাজারে পানি উন্নয়ন বোর্ডের জমি দখল করে তিনতলা ভবন নির্মান করে ভোগদখল করে যাচ্ছেন। ওই তিনতলা ভবনের দ্বিতীয় তলায় ইসলামী ব্যাংক তৃতীয় তলায় একটি এনজিও এবং নীচ তলায় নিজস্ব কার্যালয়। পাউবোর এসও সেখানে দেখতে পায়না। এমন কয়েকশ’ পাকা বিল্ডিং তৈরি হলেও কোন জায়গায় বাঁধা দেয়নি এসও।



যত আইন সব কি শুধু মাত্র আমাদের মত অসহায় গরিব মানুষ গুলোর ক্ষেত্রে। এছাড়াও চম্পাফুলের বিভিন্ন স্থানে নদীর জমি, খাস জমি দখল করে ভোগ দখল করে যাচ্ছেন মোজাম চেয়ারম্যান। আর সেখানে মাত্র ৩ শতক সম্পত্তি সেখানে সন্তানদের নিয়ে মাথা গোজার ঠাঁই নিয়েছিলাম। সেটি যেন এসও খালেক ও চেয়ারম্যানের চোখের কাটা হয়ে দাড়িয়েছিল। তিনি বাড়ির ঘর ভাংচুর মারপিটের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ