1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
মঙ্গলবার, ০৩ অগাস্ট ২০২১, ০১:৩১ অপরাহ্ন

ইউএনও’র হস্তক্ষেপে ব্যর্থ হলো শিবসার চরভরাটি জমি জবর দখল চেষ্টা

  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৮ জুলাই, ২০২১
  • ১৪৫ বার পড়া হয়েছে
পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি : অবশেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকীর হস্তক্ষেপে ব্যর্থ হলো শিবসার চরভরাটি জমি জবর দখলের চেষ্টা। ইউএনও’র কঠোর নির্দেশনায় পিছু হটতে বাধ্য হয় জবর দখলকারী চন্ডি চরণ বিশ্বাস। উল্লেখ্য, লকডাউন বাস্তবায়ন করতে স্থানীয় প্রশাসন যখন ব্যস্ত সময় পার করছে এ সুযোগে উপজেলার লস্কর ইউনিয়নের কড়–লিয়া গ্রামের চন্ডিচরণ বিশ্বাস নামের এক ব্যক্তি শিবসার চর ভরাটি জমি জবর দখলের চেষ্টা করে।



মূলত তৎকালীন বাতিখালী এবং বর্তমান বাঁকা গ্রামের পরেশ কুমার ঘোষের পিতা অনীল কৃষ্ণ ঘোষ ২ একর ২১ শতক ও পরেশের কাকা তারক চন্দ্র ঘোষ ৬৬ শতক জমি কড়–লিয়া মৌজায় ক্রয় করে। অনীল তার সম্পতি ছেলে পরেশের নামে দানপত্র করে দেয় এবং তারক, মা রাধু রানী ঘোষের নামে বিক্রি করে দেয়। পরবর্তীতে আদালতের মামলার কারণে মোট সম্পত্তি থেকে ৫৬ শতক জমি অন্যদের অনুক‚লে চলে যায় এবং কিছু জমি ওয়াপদায় চলে যায়। অবশিষ্ট ২ একর জমি পরেশ এবং তারকের মায়ের নামে রেকর্ড হয়।



প্রায় ৫২ বছর যাবৎ পরেশ গংরা ধান ও মাছ চাষের মাধ্যমে তাদের প্রাপ্য ২ একর জমি ভোগ দখল করে আসছে। পরেশ গংদের বিআরএস খতিয়ানের ১৮ দাগের সামনে দীর্ঘদিন শিবসার পলি জমে চর জেগে উঠেছে। অপর দিকে ১৮ দাগের মাথায় চন্ডি চরণ গংদের ১ বিঘা জমি রয়েছে।



যার মাথায়ও চর জেগে উঠেছে। প্রায় ২ বছর আগে চন্ডি চরণ গংরা তাদের জমির মাথায় জেগে ওঠা চর দখলে নেয়। এরপর তারা গত রোববার পরেশ গংদের জমির সামনে জেগে ওঠা চর ভরাটি জমি জবর দখলের চেষ্টা করে। কিছুটা বাঁধ দেওয়ার পর বিষয়টি দৃষ্টিগোচর হয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশনার (ভ‚মি)র। তাৎক্ষনিকভাবে ইউএনও এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী জবর দখলকারীর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিলে জবর দখল চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে পিছু হটতে বাধ্য হয় চন্ডি চরণ ও তার লোকজন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ