1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০৪:৪৭ পূর্বাহ্ন

বাড়ছে করোনা শনাক্তের হার, ‘লকাডাউন’ হতে পারে সাতক্ষীরা

  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১ জুন, ২০২১
  • ১০২ বার পড়া হয়েছে

ডেস্ক রিপোর্ট: সাতক্ষীরায় সর্বশেষ আট দিনে করোনা শনাক্তের হার ৪১.২ শতাংশ। উদ্বেগজনকভাবে সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় সীমান্তে কড়া নজরদারির সাথে সাথে জনসচেতনতা বৃদ্ধির প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এই লক্ষ্যে সাতক্ষীরার ২২৮ কিলোমিটার সীমান্ত গলিয়ে বৈধপথে আসা মানুষকে বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে নেওয়ার পাশাপাশি চোরাপথে অবৈধভাবে আসা লোকজনকে আটক করেও কোয়ারেন্টিনে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।



মঙ্গলবার (১ জুন) সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল নিজ সম্মেলন কক্ষে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত মিট দ্য প্রেসে এসব তথ্য জানান। জেলা প্রশাসক বলেন, গত ১৬ মে থেকে ৩১ মে পর্যন্ত করোনার নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১২৬২ জনের।



এর মধ্যে করোনা শনাক্ত হয়েছে ২৭০ জনের শরীরে। এর মধ্যে সর্বশেষ আটদিনে করোনা শনাক্তের হার ৪১.২ শতাংশ। জেলা প্রশাসক বলেন, ১ জুন পর্যন্ত হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ১৩৮ জন। এদের মধ্যে করোনা পজেটিভ ৫৩ জন। জেলা প্রশাসক আরও বলেন, নমুনা পজেটিভ ১৩৮ জনের মধ্যে সাতক্ষীরা সদরের ৩৯, কালিগঞ্জের ২৪, আশাশুনির ২০ ও শ্যামনগরের ১৫ জন রয়েছেন।



মিট দ্য প্রেসে বলা হয়, সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আরও একটি করোনা ইউনিট গড়ে তোলা হচ্ছে। একইসাথে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে এরই মধ্যে একটি করোনা ইউনিট স্থাপন করে তার সম্প্রসারণ করা হচ্ছে। এছাড়া জেলার কয়েকটি বেসরকারি হাসপাতালে অনেক করোনা রোগী রয়েছে। তাদের সাথে যাতে সাধারণ রোগীদের সংযোগ না থাকে সে বিষয়ে নিশ্চিত করার জন্য স্বাস্থ্য বিভাগকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।



বর্তমান সময়ে করোনা প্রতিরোধে বেশ কিছু বাধানিষেধ আরোপ করা হয়েছে জানিয়ে জেলা প্রশাসক আরও বলেন, ভোমরা স্থলবন্দরে প্রতিদিন আসা ভারতীয় ট্রাক ও হেলপারদের প্রকাশ্যে বেড়ানো নিষিদ্ধ করা হয়েছে। বিজিবির টহল জোরদার করে চোরাচালানী, মানুষ পাচারকারী ও অবৈধ যাতায়াতকারীদের প্রতিরোধ করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে বিজিবির জনবল বৃদ্ধি করার জন্য সরকারের কাছে সুপারিশ করা হয়েছে।



জেলা প্রশাসক আরও বলেন, সাতক্ষীরায় বর্তমান সময়ে কোভিড সংক্রমণের পাশাপাশি চলছে ইয়াসের প্রভাবে সৃষ্ট জোয়ারের দাপট। মানুষ এখানে চরম দুর্ভোগে রয়েছে। তিনি সকলকে মাস্ক ব্যবহার এবং আইন লঙ্ঘন করলে জরিমানা করা, একইসাথে পুলিশি টহল জোরদারের ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন।



তিনি বলেন, ৩ জুন সব রিপোর্ট সমন্বয় করে করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভায় লকডাউন দেওয়া হবে কি না সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। মিট দ্য প্রেসে অন্যান্যদের মধ্যে সাতক্ষীরার সিভিল সার্জন ডা. হুসাইন শাফায়াত উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ