1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ০৮:৫০ পূর্বাহ্ন

শিমুলিয়ায় জনস্রোত, পারাপারের অপেক্ষায় হাজারও যাত্রী

  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ৯ মে, ২০২১
  • ৭৩ বার পড়া হয়েছে
মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটে ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের ভিড়। ছবি: সংগৃহীত

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি : গতকাল শিমুলিয়া ফেরিঘাটে জনস্রোতের চাপে ফেরি বন্ধ করা হয়েছে। জনস্রোত ঠেকাতে মোতায়েন করা হয়েছে বিজিবি। তারপরও বাড়ি ফেরার জন্য মানুষ ভিড় করেছেন ফেরিঘাটে। আজ রবিবার সকাল থেকে দক্ষিণের জেলাগুলোতে প্রবেশের জন্য হাজার হাজার মানুষ ঘাটে ভিড়তে শুরু করে।



বেলা যত বাড়ছে, ভিড়ও তত বাড়ছে। বিজিবির টহলের মধ্যে এসব যাত্রী ঘাটে জড়ো হয়েছেন। পারাপারের অপেক্ষায় আছে প্রায় ৩৫০টি যানবাহন। গতকাল রাতে বিআইডব্লিউটিসি ১৫টি ফেরি দিয়ে পারাপার করার পর আজ ভোর থেকে তা বন্ধ করে দেয়া হয়। তবে সকাল পৌনে ৮টার দিকে আটটি অ্যাম্বুলেন্সসহ ‘ফেরি ফরিদপুর’ ১ নম্বর ঘাট থেকে ছেড়ে যাওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে বিআইডব্লিউটিসির সহকারী মহাব্যবস্থাপক মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘দিনের বেলায় ফেরি বন্ধ আছে। শুধু জরুরি পরিষেবার অংশ হিসেবে কিছু যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। সেই ফেরিতেই লোকজন হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন।’



সরেজমিন ১ নম্বর ঘাটে গিয়ে দেখা যায়, কয়েক হাজার যাত্রী ফেরির জন্য পন্টুনে অপেক্ষা করছেন। ফেরি ফরিদপুরে ওঠার জন্য যাত্রীরা হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন। পুরো ফেরি মানুষে ভর্তি হয়ে যেতে সময় লাগে কয়েক মিনিট। লোকজনের চাপে ফেরির ডালা ওঠানো যাচ্ছিল না। পুলিশ তখন লাঠিপেটা করে ফেরির ডালা ওঠানোর ব্যবস্থা করে। পরে গাদাগাদি করে ছোট ফেরিটিতে করে প্রায় দেড় হাজার মানুষ ওপারের কাঁঠালবাড়ি ঘাটের দিকে রওনা দেয়।



শিমুলিয়া ঘাটের ট্রাফিক পুলিশের কর্মকর্তা হিলাল উদ্দিন বলেন, ‘ভোররাত থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ। তবে সকালে কয়েকটি অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে একটি ছোট ফেরি এ ঘাট থেকে ছেড়ে গেছে। আর সকাল পৌনে ১০টার দিকে ফেরি শাহপরান ছেড়ে গেছে জরুরি পণ্যবাহী যানবাহন ও অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ