1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
মঙ্গলবার, ০৩ অগাস্ট ২০২১, ০১:৩৪ অপরাহ্ন

প্রধান সড়কের উন্নয়ন কাজ দীর্ঘদিন ফেলে রাখায় চরম ভোগান্তিতে পৌরবাসী

  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৬ মার্চ, ২০২১
  • ২৩৬ বার পড়া হয়েছে

মোঃ আব্দুল আজিজ, পাইকগাছা, খুলনা : পাইকগাছা পৌরসভার প্রধান সড়ক ও শিববাটী সড়কের উন্নয়ন কাজ দীর্ঘদিন ফেলে রাখায় যাতায়াতে ভোগান্তি বেড়েছে জনসাধারণের। ধুলা আর কাদার মধ্য দিয়েই প্রতিদিন চলতে হচ্ছে পৌরবাসীকে। পৌর কর্তৃপক্ষ সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে উন্নয়ন কাজ শেষ করার জন্য বার বার তাগিদ দিলেও টনক নড়ছে না সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারদের। বিষয়টি নিয়ে উপজেলা আইন শৃংখলা কমিটির সভা সহ সর্বত্রই প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হচ্ছে পৌর কর্তৃপক্ষকে।



জনভোগান্তির কথা বিবেচনা করে দ্রæত উন্নয়ন কাজ সম্পন্ন করার দাবী জানিয়েছেন পৌরবাসী। উল্লেখ্য, পৌর সদরের জিরোপয়েন্ট এলাকা থেকে শিববাটী ব্রীজ পর্যন্ত জনগুরুত্বপূর্ণ পৌরসভার প্রধান সড়কটি দীর্ঘ প্রতিক্ষারপর বছরখানের আগে কার্পেটিং (পিচ) করার জন্য টেন্ডার প্রক্রীয়া সম্পন্ন করা হয়। জিরোপয়েন্ট থেকে পুরাতন পরিবহন কাউন্টার পর্যন্ত একটি খন্ড, পুরাতন পরিবহন কাউন্টার থেকে থানা পর্যন্ত দ্বিতীয় খন্ড, থানা থেকে পুরাতন খাদ্য গুদাম পর্যন্ত তৃতীয় খন্ড এবং পুরাতন খাদ্য গুদাম থেকে শিববাটী ব্রীজ পর্যন্ত চতুর্থ খন্ডে ভাগ করা হয় সড়কটি। এর মধ্যে থানা থেকে পুরাতন খাদ্য গুদাম পর্যন্ত অংশটি এখনো পর্যন্ত টেন্ডার আহবান করা হয়নি। বাকী ৩ খন্ড টেন্ডার প্রক্রীয়া সম্পন্ন শেষে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কাজ শুরু করলেও প্রায় ১ বছর যাবৎ অসম্পন্ন রেখে দিয়েছে। জিরোপয়েন্ট থেকে পুরাতন পরিবহন কাউন্টার পর্যন্ত অংশের কার্পেটিং কাজ ইতোমধ্যে অনেক আগেই শেষ করা হয়েছে।



কিন্তু পুরাতন পরিবহন কাউন্টার থেকে বাজার হয়ে শিববাটী ব্রীজ পর্যন্ত প্রায় ২ কিলোমিটার সড়কের উন্নয়ন কাজ এক বছর যাবৎ থমকে আছে। নিম্ন মানের ইটের খোঁয়া দিয়ে কোন রকমে রুলার দিলে সমান করে দায়সারা কাজ করে রেখেছে। দীর্ঘদিন উন্নয়ন কাজ ফেলে রাখায় একদিকে ইটের খোঁয়াগুলো উঠে গিয়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। অপরদিকে যানবাহন চলাচলের সময় সড়ক জুড়েই ধুলায় অন্ধকার হয়ে যায়। শিববাটী গ্রামের ইমন জানান, সড়ক দিয়ে চলার সময় একটি মটর সাইকেল যখন যায় তখন তার পিছনে ধুলার জন্য কিছুই দেখা যায় না। সড়কের এ ধুলা শ্বাসপ্রশাসের সাথে চলাচলরত জনসাধারণের শরীরে ঢুকছে।



এদিকে প্রধান সড়কের ধুলা নিয়ন্ত্রণ করা জন্য সড়কের পাশের ব্যবসায়ীরা প্রতিদিন কয়েকবার পাইপ এর মাধ্যমে পানি দিয়ে ধুলা নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করে আসছে। মাসুম বিল্লাহ লাচ্চু বলেন, এর ফলে যখন পানি দেয় তখন সড়কের ধুলা কাদায় পরিণত হয়। অনেক সময় যানবাহনের চাকা থেকে কাদা পানি ছিটকে সড়কের চলাচলরত মানুষের পোষাক নষ্ট করে দেয়। বর্তমানে প্রধান সড়ক ও শিববাটী সড়কটি পৌরবাসীর জন্য প্রতিদিনের ভোগান্তির কারণ হয়ে দাড়িয়েছে। এ ব্যাপারে প্যানেল মেয়র এসএম এমদাদুল হক জানান, দীর্ঘদিন ধরে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে বারবার তাগিদ দেওয়া হয়েছে। ঠিকাদারদের কারণে জনপ্রতিনিধি হিসেবে আমাদেরকেও প্রতিনিয়ত জনসাধারণের কাছে প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হচ্ছে। সর্বশেষ অতিসম্প্রতি মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর সকল ঠিকাদারদের ডেকে নিয়ে উন্নয়ন কাজ দ্রæত শেষ করার জন্য কড়া তাগিদ দিয়েছেন। আশা করছি সড়ক উন্নয়নের অবশিষ্ঠ কাজ খুব দ্রæত শেষ করা সম্ভব হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ