1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ০১:১৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
আবারো জীবনের নতুন অধ্যায় শুরু, আশীর্বাদ চাইলেন শ্রাবন্তী হাট-বাজারের দরপত্র দাখিলে অনিয়ম, রাতেও সিডিউল বিক্রির অভিযোগ আশাশুনিতে থানা পুলিশের অভিযানে গরু ও গাড়িসহ দুই চোর গ্রেফতার আশাশুনিতে আইন-শৃঙ্খলা বিষয় নিয়ে গ্রাম পুলিশদের সাথে জরুরী আলোচনা শার্শায় সন্ত্রাসী হামলায় ৪ জন ছাত্র আহত পাইকগাছায় নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধে পল্লীসমাজের উঠান বৈঠক পাইকগাছা পৌরসভার নতুন ওয়াটার রির্জারভার এর নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ডিজিটাল ভূমি ব্যবস্থাপনায় বিশেষ অবদান রাখায় সম্মাননা পেলেন ইউএনও খালিদ হোসেন অপ্রচলিত কৃষি পণ্য উৎপাদন ও রপ্তানিতে প্যাকেজিং বিষয়ক কৃষক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত প্রতিবন্ধী আল-আমিনকে আর্থিক সহায়তা দিলেন ইউএনও খালিদ হোসেন

রইচউদ্দীনকে দেয়া কথা রাখলেন ডিসি

  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৬৬ বার পড়া হয়েছে

ডেস্ক রিপোর্ট : অন্যের জমিতে কুঁড়েঘরে বসবাস করা সেই দিনমজুর রইচউদ্দীন সরদার (৭০) নতুন ঘর পেয়েছেন। এখন থেকে নিজ গ্রাম সদর উপজেলার আগরদাড়ি ইউনিয়নের নেবাখালী গ্রামে নতুন ঘরে বসবাস করবেন তিনি। সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রইচউদ্দীনের কাছে নতুন ঘর হস্তান্তর করা হয়েছে। এ সময় রইচউদ্দিনকে একটি ফলের প্যাকেট, ১০ কেজি চাল এবং কম্বল উপহার দেন সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল।

jagonews24

মুজিববর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন সাতক্ষীরা জেলা শাখার অর্থায়নে এই ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। ঘর হস্তান্তর অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেবাশীষ চৌধুরী, সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আসাদুজ্জামান, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. ইয়ারুল হকসহ প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।



সাতক্ষীরা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন সাতক্ষীরা জেলা শাখার অর্থায়নে আমরা ঘরের নির্মাণ কাজ শুরু করি। এক লাখ ৭১ হাজার টাকা ব্যয়ে নির্মিত এই ঘরে দুটি শয়নকক্ষ, একটি রান্না ঘর ও একটি টয়লেট রয়েছে।

jagonews24



সবার জন্য দোয়া করি। ডিসি স্যার কথা রেখেছেন। রইচউদ্দীনকে সহযোগিতা করায় স্থানীয় বাসিন্দারা জেলা প্রশাসকের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। নিজের কোনো ঘর না থাকায় রইচউদ্দীন সরদার সাতক্ষীরা সদর উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের খানপুর গ্রামে শ্বশুরবাড়ির পাশে একটি কুঁড়েঘরে স্ত্রী, তিন ছেলে, এক মেয়ে ও এক নাতিকে নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করতেন।

jagonews24

তার কষ্টের কথা তুলে ধরে এখন আর কেউ কাজে নিতে চায় না দিনমজুর রইচউদ্দীনকে! শিরোনামে জাগো নিউজে গত বছরের ১৪ অক্টোবর সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এরপর অনেক হৃদয়বান মানুষ তাকে সহায়তা করেন। সংবাদটি নজরে এলে গেল বছরের ২১ অক্টোবর সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল রইচউদ্দীনকে নিজ কার্যালয়ে ডেকে নতুন ঘর তৈরি করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ