1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১০:৩৪ পূর্বাহ্ন

পৌর শহরকে অস্থিতিশীল করার জন্য বিভিন্ন দোকানে আগুন ও চুরি

  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৫৭ বার পড়া হয়েছে
মোঃ আশাদুল ইসলাম, কোটচাঁদপুর প্রতিনিধি : ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর পৌর শহরকে অস্থিতিশীল পরিস্থিতিতে ফেলার জন্য একটি কুচক্রী মহল রাতের আধারে শহর এলাকার বিভিন্ন দোকানে দোকানে আগুন দিচ্ছে ও চুরি করছে এবং বিভিন্ন কৃষকদের গোখাদ্য বিচলী গাদায় আগুন দিয়ে পালিয়ে যাচ্ছে। সদ্য ৩০শে জানুয়ারি পৌরসভা নির্বাচন শেষ হতে না হতেই শহরকে অস্থিতিশীল করার জন্য এই জঘন্য কাজ করতে একটি চক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে। পৌর শহরের অনেকেরই ধারণা সদ্য পৌরসভা নির্বাচন ঘিরে নির্বাচনী এলাকাকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য ও আইনী সেবা অবনতি করার  জন্য দোকানে দোকানে চুরি, আগুন দিয়ে ও গোখাদ্য হিসাবে ব্যবহিত বিচলি গাদায় আগুন দিচ্ছে। এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায় গত ২৮শে জানুয়ারি হতে ১৩ই ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত ৬টি বিচলি গাদায় আগুন ধরানো, ৩টি দোকানে চুরি ও ৪ টি দোকানে আগুন লাগানো হয়েছে। এর ভিতরে বিচলি গাদার মালিক পৌর ৭নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা জুড়োন পাল,লক্ষ্মণ, মামুন,হযরত, মনিরুজ্জামান রিন্টু ও স্বপন।দোকানে আগুন দিয়া ক্ষতিগ্রস্ত ভুক্তভোগীরা হলেন একই ওয়ার্ডের জাহান্দার স্টোর,সুমন স্টোর, স্বপন স্টোর ও দুদুমিয়ার চটপটির দোকান এবং চুরি হওয়া দোকান হলো খন্দকার টেলিকম,সোনালী প্রেস ও সনি আবাসিকের নিচে  নাফীজা ইলেকট্রনিকস। ক্ষতিগ্রস্ত ভুক্তভোগীদের সাথে কথা বললে তারা এইসব জঘন্য কাজের সুষ্ঠু বিচার ও ক্ষতিপূরণের দাবি জানান। এবিষয়ে প্রশাসনের সাথে কথা বললে তারা জানান একটি কুচক্রী মহল শহরকে অস্থিতিশীল বানানোর জন্য এই জঘন্য কাজ করছে। তারা আরও জানান যেসব দোকানে দোকানে আগুন ও চুরির ঘটনা ঘটেছে সেসব ভুক্তভোগী দোকানে যেয়ে দেখা যাই কোন গুরুত্বপূর্ণ জিনিস চুরি হচ্ছে না বা নিচ্ছে না, তাহলে কোন উদ্দেশ্যে এইসব দোকানের তালা ও সার্টার ভাঙা হচ্ছে? এমন প্রশ্নের উত্তরে প্রশাসন জানান এটা কোন চুরির উদ্দেশ্য না, পৌর নির্বাচন ঘিরে শহরকে অস্থিতিশীল ও জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করার জন্যই এই চক্রটি এই জঘন্য কাজ করছে। আরও বলেন মডেল থানার প্রত্যেকটা ইউনিট এই চক্রটিকে ধরার জন্য পৌর শহরের বিভিন্ন জায়গায় নিরাপত্তা বাড়িয়েছেন এবং প্রতিনিয়ত অভিযান অব্যাহত রয়েছে এবং এই জঘন্য কাজে জড়িত কেউ ধরা পড়লে তার শাস্তি অনিবার্য ও যারা এদের সাথে জড়িত তারা যত বড় ক্ষমতাধর হোক না কেন কাউকে ছাড় দেয়া হবে না এবং আইনের আওতায় তাদের প্রত্যেককে বিচারের সম্মুখীন হতে হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ