1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:০৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শার্শায় নিখোঁজের এক দিন পর বেতনা নদী থেকে নাসির মোল্লার মরদেহ উদ্ধার মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিগাঁথা ৬ ডিসেম্বর: ঐতিহাসিক দেবহাটা মুক্ত দিবস আছাদুল হককে জেলা থ্রি-হুইলার মালিক সমিতির ফুলেল শুভেচ্ছা দেবহাটায় ভূমিহীন কৃষক নেতা সাইফুল্লাহ লস্করের মৃত্যু বার্ষিকী পালিত বীর মুক্তিযোদ্ধা এমপি রবিকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানালেন চেয়ারম্যান আজমল উদ্দীন নরসিংদী রায়পুরায় ট্রেনের ধাক্কায় দুমড়ে-মুচড়ে গেলো ইজিবাইক, চালক নিহত পাইকগাছায় সামাজিক জবাবদিহিতা মূল স্রোতধারাকরণ বিষয়ক অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত পাইকগাছায় অটো রাইসমিলে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড; কোটি টাকার ক্ষতি সদর উপজেলা যুবলীগের উদ্যোগে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মনি’র ৮৩তম জন্মবার্ষিকী পালন সাতক্ষীরায় আল-আরাফাহ্ধসঢ়; ইসলামী ব্যাংক লি: এর উদ্যোগে মানি লন্ডারিং এবং সন্ত্রাসে অর্থায়ণ প্রতিরোধ বিষয়ক দিন ব্যাপি প্রশিক্ষণ কর্মশালা

অঝোরে কাঁদলেন নরেন্দ্র মোদি

  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১০২ বার পড়া হয়েছে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতীয় সংসদে দাঁড়িয়ে প্রবীণ কংগ্রেস নেতা গোলাম নবী আজাদের বিদায় উপলক্ষে বক্তব্য রাখতে গিয়ে অঝোরে কাঁদলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। খবর এনডিটিভির। মঙ্গলবার রাজ্যসভায় সামনাসামনি বসা বিরোধী নেতা আজাদকে প্রশংসার বন্যায় ভাসিয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন নরেন্দ্র মোদি। দু’জনে গুজরাট এবং জম্মু-কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন কিছু ঘটনার স্মৃতিচারণও করেন তিনি। ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি গোলাম নবী আজাদকে বহু বছর ধরে চিনি। আমরা একসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী ছিলাম। আমি মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার আগে থেকেই আমরা মতবিনিময় করেছি, তখন আজাদ সাহেব রাজনীতিতে খুব বেশি সক্রিয় ছিলেন। তার একটা আসক্তি রয়েছে, যা অনেকেই জানেন না- বাগান করা।’ বক্তব্যে ২০০৭ সালে জম্মু-কাশ্মীরে গুজরাটের একদল পর্যটকের ওপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনাও উল্লেখ করেন নরেন্দ্র মোদি। তিনি জানান, ওই ঘটনা জানাতে প্রথমেই তার কাছে ফোন করেছিলেন আজাদ। সেসময় কাশ্মীরি মুখ্যমন্ত্রীর চোখের পানি থামছিল না বলেও জানান এ বিজেপি নেতা।

jagonews24

মোদি বলেন, কাশ্মীরে সন্ত্রাসী হামলার কারণে গুজরাটের মানুষজন আটকে গেলে জনাব আজাদ এবং প্রণব মুখার্জির প্রচেষ্টার কথা আমি কখনো ভুলব না। ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ওই রাতে গোলাম নবী আমাকে ফোন করেছিলেন। তাকে এমন চিন্তিত মনে হচ্ছিল, যেমনটা মানুষ নিজের পরিবারের জন্য হয়। তিনি ওই ধরনের অনুভূতি য়েছিলেন।এটা বলতে গিয়েই অঝোরে কেঁদে ফেলেন নরেন্দ্র মোদি। কান্না থামাতে কিছুক্ষণের জন্য থামতে হয় তাকে। এসময় ডেস্ক চাপড়ে মোদিকে সাধুবাদ জানান সংসদের অন্য নেতারা। তিনি বলেন, ‘ক্ষমতা আসে আর যায়। তবে সেটি কীভাবে সামলাতে হয়…,’ এটুকু বলে আবারো থামেন মোদি এবং গোলাম নবী আজাদকে স্যালুট করে সম্মান জানান। আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি রাজ্যসভায় মেয়াদ শেষ হচ্ছে বর্ষীয়ান নেতা আজাদের। তার উদ্দেশে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি আপনাকে অবসর নিতে দেব না। আমি আপনার উপদেশ নেওয়া চালিয়ে যাব। আপনার জন্য আমার দরজা সবসময় খোলা।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ