1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ০৫:৪০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
আবারো জীবনের নতুন অধ্যায় শুরু, আশীর্বাদ চাইলেন শ্রাবন্তী হাট-বাজারের দরপত্র দাখিলে অনিয়ম, রাতেও সিডিউল বিক্রির অভিযোগ আশাশুনিতে থানা পুলিশের অভিযানে গরু ও গাড়িসহ দুই চোর গ্রেফতার আশাশুনিতে আইন-শৃঙ্খলা বিষয় নিয়ে গ্রাম পুলিশদের সাথে জরুরী আলোচনা শার্শায় সন্ত্রাসী হামলায় ৪ জন ছাত্র আহত পাইকগাছায় নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধে পল্লীসমাজের উঠান বৈঠক পাইকগাছা পৌরসভার নতুন ওয়াটার রির্জারভার এর নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ডিজিটাল ভূমি ব্যবস্থাপনায় বিশেষ অবদান রাখায় সম্মাননা পেলেন ইউএনও খালিদ হোসেন অপ্রচলিত কৃষি পণ্য উৎপাদন ও রপ্তানিতে প্যাকেজিং বিষয়ক কৃষক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত প্রতিবন্ধী আল-আমিনকে আর্থিক সহায়তা দিলেন ইউএনও খালিদ হোসেন

লোহাগড়ায় টমেটোর বাম্পার ফলন লাভবান কৃষকরা

  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৭৫ বার পড়া হয়েছে

জহুরুল হক মিলু, লোহাগড়া প্রতিনিধি : নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলায় এবার টমেটোর বাম্পার ফলন হয়েছে। পাশাপাশি ন্যায্য দাম পাওয়ায় খুশি চাষিরাও। শীতের এই সবজির আবাদও গত বছরের তুলনায় বেড়েছে। উপজেলা কৃষি অফিস স‚ত্রে জানা গেছে, উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন একটি পৌরসভাতে প্রায় ৪০ হেক্টর জমিতে টমেটো চাষ হয়েছে। গত বছর টমেটো চাষ হয়েছিল ৩০ হেক্টর জমিতে। উপজেলার জয়পুর, লোহাগড়া, লক্ষীপাশা, ইতনা, মল্লিকপুর, দিঘলিয়া, কোটাকোল, নোয়াগ্রাম, শালনগর, লাহুড়িয়া, নলদী, কাশিপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় আবাদি জমিতে টমেটোর চাষ হয়েছে এবার। টমেটোর পাশাপাশি স্থানীয় চাষিরা ফুলকপি, বাঁধাকপি, শিম, লাউ, বেগুনসহ নানা ধরনের সবজিও চাষ করেছেন। জয়পুর ইউনিয়নের দায়িত্বরত উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. আলমগীর হোসেন বলেন, এবার টমেটো উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ছিল প্রতি হেক্টরে ২০ মেট্রিক টন। তবে উৎপাদন হয়েছে প্রতি হেক্টরে ২৩ থেকে ২৫ মেট্রিক টন। উপজেলার লোহাগড়া বাজার, এডেন্দা বাজার, দিঘলিয়া বাজার, লাহুড়িয়া বাজার, নলদী বাজারের বিভিন্ন আড়তে টমেটো বিক্রি হচ্ছে। লোহাগড়া বাজারে গিয়ে দেখা গেছে প্রতি কেজি টমেটোর পাইকারি দাম ১৩ থেকে ১৫ টাকা। তবে খুচরা বাজারে টমেটো বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ২৫ থেকে ৩০ টাকা দরে। লোহাগড়া উপজেলার ধানাইড় গ্রামের টমেটো চাষি মো. আমিনুর রহমান বলেন, আমি ‘তিন বছর ধরে টমেটোর চাষ করছি। এবার ৩০ শতাংশ জমিতে টমেটো আবাদ করেছি। এতে ৩০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। অন্য বছরের তুলনায় এবার টমেটোর ফলন ভালো হয়েছে। প্রতি সপ্তাহে ৭ হাজার ৫শ থেকে ৮ হাজার ৫শ টাকার টমেটো বিক্রি করি। তিনি আরোও বলেন, এ পর্যন্ত বিক্রি হয়েছে প্রায় ৬৫ হাজার টাকার মতন। এখনও প্রায় অর্ধেকেরও বেশি জমিতে টমেটো রয়ে গেছে। যদি কোনও বিপর্যয় না ঘটে তাহলে বাকি টমেটো থেকে আরও ৭০-৮০ হাজার টাকার টমেটো বিক্রি করতে পারবেন তিনি। খরচ বাদ দিয়ে প্রায় ১ লাখ ২০ হাজার টাকা লাভ হবে।’ লোহাগড়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সমরেন বিশ^াস জানান, উপজেলার জয়পুর, নলদী, লাহুড়িয়া, দিঘলিয়া, লোহাগড়া ইউনিয়নে এবার প্রচুর টমেটোর চাষ হয়েছে। এবছর ৪০ হেক্টর জমিতে টমেটো চাষ হয়েছে। এর মধ্যে নারানদিয়া, জয়পুর ও ধানাইড় গ্রামে সবচেয়ে বেশি। টমেটো চাষে লাভ হওয়ায় স্থানীয় চাষিদের মধ্যে আগ্রহও বাড়ছে। এ কারণে টমেটো চাষের জমির পরিমাণ দিন দিন বাড়ছে। তবে আবহাওয়া অনুক‚লে থাকায় এবারে টমেটো চাষে বেশি ফলন হয়েছে। এবার এ পর্যন্ত টমেটো চাষ করে অনেক কৃষক আর্থিক স্বচ্ছলতা ফিরে পেয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ