1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ১১:২৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
আবারো জীবনের নতুন অধ্যায় শুরু, আশীর্বাদ চাইলেন শ্রাবন্তী হাট-বাজারের দরপত্র দাখিলে অনিয়ম, রাতেও সিডিউল বিক্রির অভিযোগ আশাশুনিতে থানা পুলিশের অভিযানে গরু ও গাড়িসহ দুই চোর গ্রেফতার আশাশুনিতে আইন-শৃঙ্খলা বিষয় নিয়ে গ্রাম পুলিশদের সাথে জরুরী আলোচনা শার্শায় সন্ত্রাসী হামলায় ৪ জন ছাত্র আহত পাইকগাছায় নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধে পল্লীসমাজের উঠান বৈঠক পাইকগাছা পৌরসভার নতুন ওয়াটার রির্জারভার এর নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ডিজিটাল ভূমি ব্যবস্থাপনায় বিশেষ অবদান রাখায় সম্মাননা পেলেন ইউএনও খালিদ হোসেন অপ্রচলিত কৃষি পণ্য উৎপাদন ও রপ্তানিতে প্যাকেজিং বিষয়ক কৃষক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত প্রতিবন্ধী আল-আমিনকে আর্থিক সহায়তা দিলেন ইউএনও খালিদ হোসেন

লালমনিরহাটে বিয়ের স্বীকৃতি পেতে থানায় এসে হাজির বরগুনার এক তরুণী

  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ৩১ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৭০ বার পড়া হয়েছে

মোঃ হাসান আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি : সোস্যাল মিডিয়া ফেইসবুকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত ছাত্র ঈমাম হোসেন ইমু (২২) এর সাথে পরিচয় হয় এক তরুণীর।  সে পরিচয় থেকে প্রেমের সম্পর্ক  গড়িয়ে ৩বছর পর বিয়ে।  আর সেই বিয়ের স্বীকৃতি না পেয়ে অবশেষে  লালমনিরহাট জেলার  হাতীবান্ধা থানায় আশ্রয় নিয়েছেন বরগুনার  এক তরুণী। বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) লালমনিরহাট জেলার  হাতীবান্ধা থানায়  সকাল ১০টা থেকে ওই তরুণী বিয়ের স্বীকৃতি চেয়ে অবস্থান নেয়। পরে ঐ তরুণী  লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। হাতীবান্ধা থানা পুলিশ জানান, ৩বছর আগে ফেইসবুকে বরগুনা সদর উপজেলা চর কলোনী এলাকার ওই  তরুণীর সঙ্গে লালমনিরহাট  জেলার হাতীবান্ধা  উপজেলা  টংভাঙ্গা  এলাকার ইব্রাহিম হোসেন খলিফার পুত্র রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ঈমাম হোসেন ইমু (২২) এর পরিচয় হয়। পরিচয় থেকে তাদের মাঝে প্রেমের সম্পর্ক হয়। এরপর গত সেপ্টেম্বর  মাসে মেয়ের খালার বাড়ি বরিশালে তাদের বিয়ে হয়। ৬মাস সংসার করার পর তাদের মাঝে দূরত্বের সৃষ্টি হয়। পরে তরুণী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। ওই তরুণীর জানান,  বিয়ে করে আমরা ৫মাস ধরে ঢাকায় একটি বাসা ভাড়া নিয়ে সংসার করি। ২মাস পর পেটে বাচ্চা এলে ঈমাম হোসেন ইমু একটি ক্লিনিকে নিয়ে গিয়ে গর্ভপাত করান। এ সুযোগে আমাকে একা রেখে সে গ্রামে বাড়ি টংভাঙ্গায় পালিয়ে যান। তিনি আরও বলেন, স্বামীর সন্ধান না পেয়ে লালমনিরহাট জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার টংভাঙ্গা গ্রামে এসে ঈমাম হোসেন ইমুর বাড়িতে উঠি। তার বাবা ইব্রাহিম হোসেন খলিফা তাকে বাড়িতে জায়গা না দিয়ে তার বড় পুত্রের বাড়িতে রাখেন। এরপর আমাকে মারধর ও হত্যার হুমকিসহ অমানবিক নির্যাতন চালায় স্বামী ঈমামসহ তার পরিবারের লোকজন। এ সময় তারা আমার কাছে ৩লক্ষ টাকা যৌতুক দাবি করেন। টাকা দিতে না পারলে নির্যাতনের  মাত্রা আরও বেড়ে যায়। এতে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে ঈমাম হোসেন কৌশলে বরগুনার বাড়িতে রেখে যান। তিনি আরও বলেন,  আমার বিয়ে স্বীকৃতি চাই। আইনের কাছে বিচার চেয়ে থানায়  আশ্রয় নিয়েছি। হাতীবান্ধা থানা অফিসার ইনচার্জ  এরশাদুল আলম সাংবাদিকদের বলেন,  এ বিষয়ে  লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ