1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪:৪৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শার্শায় নিখোঁজের এক দিন পর বেতনা নদী থেকে নাসির মোল্লার মরদেহ উদ্ধার মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিগাঁথা ৬ ডিসেম্বর: ঐতিহাসিক দেবহাটা মুক্ত দিবস আছাদুল হককে জেলা থ্রি-হুইলার মালিক সমিতির ফুলেল শুভেচ্ছা দেবহাটায় ভূমিহীন কৃষক নেতা সাইফুল্লাহ লস্করের মৃত্যু বার্ষিকী পালিত বীর মুক্তিযোদ্ধা এমপি রবিকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানালেন চেয়ারম্যান আজমল উদ্দীন নরসিংদী রায়পুরায় ট্রেনের ধাক্কায় দুমড়ে-মুচড়ে গেলো ইজিবাইক, চালক নিহত পাইকগাছায় সামাজিক জবাবদিহিতা মূল স্রোতধারাকরণ বিষয়ক অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত পাইকগাছায় অটো রাইসমিলে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড; কোটি টাকার ক্ষতি সদর উপজেলা যুবলীগের উদ্যোগে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মনি’র ৮৩তম জন্মবার্ষিকী পালন সাতক্ষীরায় আল-আরাফাহ্ধসঢ়; ইসলামী ব্যাংক লি: এর উদ্যোগে মানি লন্ডারিং এবং সন্ত্রাসে অর্থায়ণ প্রতিরোধ বিষয়ক দিন ব্যাপি প্রশিক্ষণ কর্মশালা

পরবর্তী মহামারি হতে পারে নিপা ভাইরাস

  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ৩১ জানুয়ারী, ২০২১
  • ১৪১ বার পড়া হয়েছে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : গত এক বছর ধরে করোনাভাইরাস মহামারি সামালাতেই ঘাম ছুটে যাচ্ছে বিশ্বের বড় বড় ফার্মাসিউটিক্যাল প্রতিষ্ঠানগুলোর। প্রাণঘাতী এই ভাইরাস ঠেকাতে দিনরাত কাজ করতে হচ্ছে তাদের। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি ভ্যাকসিন বাজারে এসেছে, অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে আরও কয়েকটি। এতে করোনা মহামারি সমাপ্তিতে আশার আলো দেখা দিয়েছে ঠিকই, সঙ্গে প্রশ্নও তুলে দিচ্ছে- পরবর্তী মহামারি ঠেকাতে কতটা প্রস্তুত বিশ্ব? নেদারল্যান্ড-ভিত্তিক অ্যাকসেস টু মেডিসিন ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক জয়শ্রী কে আইয়ার জানিয়েছেন, সম্প্রতি চীনে প্রায় ৭৫ শতাংশ প্রাণঘাতী নিপা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। এটিই হতে পারে পরবর্তী বৈশ্বিক মহামারি। তিনি বলেন, নিপা ভাইরাস হলো আরেকটি ক্রমবর্ধমান সংক্রমণ, যা বড় উদ্বেগের কারণ হতে পারে। এটি যেকোনো মুহূর্তে ছড়িয়ে পড়তে পারে। এমনকি পরবর্তী মহামারি ওষুধপ্রতিরোধীও হতে পারে। নিপা ভাইরাসের কারণে শ্বাসপ্রশ্বাসে মারাত্মক সমস্যা এবং এনসেফালাইটিস (মস্তিষ্ক ফুলে যাওয়া) সৃষ্টি হতে পারে। প্রাদুর্ভাব কোথায় ঘটছে তার ওপর নির্ভর করে এতে মৃত্যুহার ৪০ থেকে ৭৫ শতাংশ পর্যন্ত হতে পারে।

jagonews24

নিপা ভাইরাস সাধারণত বাদুড়ের মাধ্যমে ছড়ায়। বাংলাদেশ ও ভারতে খেজুরের রস পানের মাধ্যমে এটি ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার চিহ্নিত সবচেয়ে ভয়াবহ ১০টি সংক্রামক রোগের একটি নিপা ভাইরাস। অথচ এর মহামারি ঠেকাতে এখন পর্যন্ত বিশ্বের কোথাও কোনো প্রস্তুতি নেই। জানা গেছে, গত কয়েক বছরে বিশ্বজুড়ে দ্রুত ছড়াতে থাকা মশাবাহিত চিকুনগুনিয়া ভাইরাস ঠেকাতে বর্তমানে চারটি পণ্যের কাজ চলছে। এর মধ্যে রয়েছে একটি ভ্যাকসিন, একটি ওষুধ, একটি ডায়াগনস্টিক যন্ত্র এবং একটি কীটনাশক স্প্রে, যেটি ডেঙ্গু ও জিকা ভাইরাসের বিরুদ্ধেও কাজ করবে। কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাবের আগে ওষুধ প্রস্তুতকারীদের পাইপলাইনে করোনাভাইরাস সম্পর্কিত কোনও উদ্যোগ ছিল না। তবে মহামারিটি ছড়িয়ে পড়ার পর কয়েক মাসের মধ্যেই বেশ কয়েকটি ভ্যাকসিন তৈরি হয়েছে। বর্তমানে এই রোগ সংক্রান্ত ৬৩টি ভ্যাকসিন ও ওষুধের কাজ প্রক্রিয়াধীন। জয়শ্রী আইয়ার বলেন, আমাদের যেসব অ্যান্টিবায়োটিক রয়েছে, সেগুলো হয়তো এখনো কাজ করছে। তবে সেগুলো প্রতিস্থাপনের সময় শেষ হয়ে যাচ্ছে। তিনি বলেন, আমরা যে যক্ষ্মাকে নির্মূল করতে পারব ভাবতাম, সেটি ওষুধপ্রতিরোধী ধরনের কারণে বেশ কিছু সম্প্রদায়ের মধ্যে ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়ছে। ভবিষ্যৎ মহামারির বিষয়ে সতর্ক করে এ বিশেষজ্ঞ বলেন, এমন একটি মহামারি, যেখানে ওষুধপ্রতিরোধী জীবাণু রোগ সৃষ্টি করবে, সেটি আর অকল্পনীয় নয়, অনিবার্যও বটে, যতক্ষণ না ফার্মা শিল্প গুরুত্বসহকারে বিকল্প অ্যান্টিবায়োটিক তৈরির উদ্যোগ নেয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ