1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০১:১১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ভারতে ১০০ কোটি মানুষকে টিকা : মোদিকে হাসিনার অভিনন্দন পরীমণি: স্কুলের মেধাবী ছাত্রী থেকে আলোচিত নায়িকা ক্যাচ মিস আর বেহিসেবি বোলিংয়ে হার দেবহাটায় চালককে অজ্ঞান করে ইজিবাইক ছিনতাই, গ্রেফতার-৩ জেলা প্রশাসকের সাথে সাতক্ষীরা সাইবার-ক্রাইম অ্যালার্ট টিমের সৌজন্য সাক্ষাৎ বাংলাদেশ অবসর প্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী কল্যাণ সমিতি সাতক্ষীরা জেলা শাখার নির্বাহী কমিটির সভা ইসলামী ফাউন্ডেশনের উপপরিচালকের সাথে জেলা নাগরিক অধিকার ও উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির মতবিনিময় টাঙ্গাইল সদর উপজেলা ও পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত শার্শায় নৌকার মনোনয়ন জেরে হামলা: ইউপি সদস্যসহ আহত ২০ আ.লীগ প্রার্থীর নির্বাচনী জনসভা

বিয়ের পরদিনই নববধূর আত্মহত্যা

  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ২০ জানুয়ারী, ২০২১
  • ১২৪ বার পড়া হয়েছে
জাহাঙ্গীর আলম, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলায় বিয়ের একদিন পরই বধূ হয়ে স্বামীর বাড়িতে এসে লাশ হয়ে ফিরল তন্বী নামে এক কলেজ ছাত্রী। দীর্ঘ দিনের প্রেমের সম্পর্ক বিয়েতে গড়ালেও বিয়ের পরদিনই অজানা কারণে স্বামীর বাড়িতে ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেছেন স্থানীয় জোবেদা রুবেয়া সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষার্থী জান্নাতুল রুবাইয়াত তন্বী (২১)। বুধবার(২০ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে স্বামী সাইমের বাড়িতে নিজের শোবার ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে শাড়ির আঁচল পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি। নিহত তন্বী বাসাইল পৌরসভার জরাশাহীবাগ এলাকার অগ্রণী ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপক হাশেম খানশুর এবং বাসাইল সদর ইউনিয়নের সাবেক মহিলা মেম্বার বিউটি আক্তারের ছোট মেয়ে। তন্বীর স্বামী পৌর এলাকার পশ্চিমপাড়ার মৃত গিয়াস উদ্দিনের ছেলে সাদেক আহমেদ সাইম(৩৪)। তন্বীর মৃত্যুর বিষয় নিয়ে উভয় পরিবার পরস্পর বিরোধী বক্তব্য দিচ্ছে। জানা যায়, পাশাপাশি এলাকার বাসিন্দা হিসেবে সাইম এবং তন্বীর পরিবারের মধ্যে ভাল জানাশোনা রয়েছে। পারিবারিক সুসম্পর্ক এবং পরিচয়ের সুবাদে উভয়ের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। সম্পর্কের বিষয়টি তন্বীর পরিবার জানার পর ভালোভাবে গ্রহন করেনি। বিভিন্ন জায়গা থেকে তন্বী এবং সায়েমের বিয়ের প্রস্তাব এলেও উভয়েই অন্যত্র বিয়ে করতে রাজি হয়নি। মঙ্গলবার(১৯ জানুয়ারি) দুই পরিবারের সম্মতিতে তাদের বিয়ে হয়। পরদিন শোবার ঘরে সিলিং ফ্যানের সাথে শাড়ির আঁচল পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে তন্বী। তন্বীর দেবর শাকিল খান বলেন, ভাই-ভাবী উভয়েই বিয়ের বয়সের জন্য উপযুক্ত। স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে ভাবীর(তন্বী) পরিবার বিয়ের কাবিনসহ অনুষ্ঠানিকতা শেষ করলেও মেয়ের প্রতি তারা নাখোশ ছিলেন। বুধবার সকালে যখন ভাবী আমাকে এবং আমার ভাই সায়েমকে বাজার করতে পাঠান তখন তাকে খুব বিষন্ন লাগছিল। ধারণা করা হচ্ছে, সকালে তার বাবা-মায়ের সাথে মোবাইলে ঝগড়া করে রাগ-ক্ষোভে তিনি আত্মহত্যা করেছেন। তন্বীর বাবা হাশেম খানশুর বলেন, আমি নিজে উপস্থিত থেকে বিয়ের কাজ সম্পন্ন করেছি। বিয়ের মাত্র একরাতের মাথায় মেয়ের মৃত্যুর ঘটনা সত্যিই মর্মান্তিক এবং এটা স্বাভাবিক বলে মেনে নেওয়া যায়না। তিনি বলেন, আত্মহত্যার প্ররোচনায় আমার মেয়েকে প্ররোচিত করা হয়েছে বলে আমার বিশ^াস। পোষ্টমর্টেম রিপোর্ট হাতে পেলে মামলার বিষয়ে এগিয়ে যাবো। বাসাইল থানার অফিসার ইনচার্র্জা(ওসি) হারুনুর রশিদ বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। বাসাইল থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ