1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১২:৩৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ভারতে ১০০ কোটি মানুষকে টিকা : মোদিকে হাসিনার অভিনন্দন পরীমণি: স্কুলের মেধাবী ছাত্রী থেকে আলোচিত নায়িকা ক্যাচ মিস আর বেহিসেবি বোলিংয়ে হার দেবহাটায় চালককে অজ্ঞান করে ইজিবাইক ছিনতাই, গ্রেফতার-৩ জেলা প্রশাসকের সাথে সাতক্ষীরা সাইবার-ক্রাইম অ্যালার্ট টিমের সৌজন্য সাক্ষাৎ বাংলাদেশ অবসর প্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী কল্যাণ সমিতি সাতক্ষীরা জেলা শাখার নির্বাহী কমিটির সভা ইসলামী ফাউন্ডেশনের উপপরিচালকের সাথে জেলা নাগরিক অধিকার ও উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির মতবিনিময় টাঙ্গাইল সদর উপজেলা ও পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত শার্শায় নৌকার মনোনয়ন জেরে হামলা: ইউপি সদস্যসহ আহত ২০ আ.লীগ প্রার্থীর নির্বাচনী জনসভা

সাতক্ষীরায় শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলা মামলার যুক্তিতর্ক

  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৭৩ বার পড়া হয়েছে

ডেস্ক রিপোর্ট : সাতক্ষীরার কলারোয়ায় শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলার মামলায় আজ মঙ্গলবার দ্বিতীয় দিনের মতো যৃুক্তিতর্ক অনুষ্ঠিত হয়েছে। সাতক্ষীরা চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হুমায়ুন কবিরের আদালতে এই যুক্তিতর্কে অংশ নেন বাদি ও বিবাদি পক্ষের আইনজীবীরা। আদালত উভয় পক্ষের বক্তব্য রেকর্ড করেন। এ সময় আসামির কাঠগড়ায় বিএনপি দলীয় সাবেক সংসদ সদস্য হাবিবুল ইসলাম হাবিবসহ ৫০ জন উপস্থিত ছিলেন। সরকার পক্ষে এ মামলা পরিচালনা করেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল এসএম মুনির,ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সুজিত মুখার্জি , ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শাহিন মৃধা ও সাতক্ষীরার পিপি অ্যাড. আবদুল লতিফ। বিবাদি পক্ষে ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট শাহানারা আক্তার বকুল, অ্যাড. আবদুল মজিদ, অ্যাড. মিজানুর রহমান পিন্টু ও অ্যাড. তোজাম্মেল হোসেন। এ প্রসঙ্গে অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনালে এসএম মুনীর বলেন বুধবার অসমাপ্ত যুক্তিতর্ক অনুষ্ঠিত হবে। আমরা আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তির আশা করছি। উলে­খ্য : ২০০২ সালের ৩০ আগস্ট সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ধর্ষণের শিকার এক মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রীকে দেখতে যান শেখ হাসিনা। মামলার নথি থেকে জানা যায়, সাতক্ষীরা থেকে যশোর যাওয়ার পথে যশোর -সাতক্ষীরা সড়কের কলারোয়ায় বিএনপি অফিসের সামনে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে বোমা হামলা চালানো হয়। গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়। হামলায় সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান ও বেশ কয়েকজন সাংবাদিক আহত হন। পরে কলারোয়া উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোসলেম উদ্দিন এ ঘটনায় কলারোয়া থানায় মামলা করেন। এই মামলা প্রথম দফায় খারিজ হয়ে যাবার পর নতুন করে ২০১৪ সালে তা পুনরুজ্জীবিত হয়। এই মামলায় সাবেক সংসদ সদস্য হাবিবুল ইসলাম হাবিবসহ ৫০ জনের বিরুদ্ধে চার্জশীট দেয় পুলিশ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ