1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ০৬:২৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
অসহায় মানুষের মাঝে ১ মাসের খাদ্য ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ সাতক্ষীরায় নতুন জেলা প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেনে মোহাম্মদ হুমায়ন কবির সদর উপজেলা চেয়ারম্যানকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানাল সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশন পাইকগাছায় ২য় দিনে ৬ মামলায় জরিমানা; মটর সাইকেল জব্দ প্রাকৃতিক উৎস থেকে চিংড়ি পোনা আহরণ করায় ৩ জনকে জরিমানা পাইকগাছায় আ.লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত আ.লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন নলতায় আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত দেবহাটায় দেড় হাজার বয়স্ক, বিধবা ও প্রতিবন্ধীর ভাতার টাকা উধাও! সাতক্ষীরায় কঠোর লকডাউনের মধ্যেও সড়কে চাঁদাবাজির অভিযোগ

সাতক্ষীরায় শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলা মামলার যুক্তিতর্ক

  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৫২ বার পড়া হয়েছে

ডেস্ক রিপোর্ট : সাতক্ষীরার কলারোয়ায় শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলার মামলায় আজ মঙ্গলবার দ্বিতীয় দিনের মতো যৃুক্তিতর্ক অনুষ্ঠিত হয়েছে। সাতক্ষীরা চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হুমায়ুন কবিরের আদালতে এই যুক্তিতর্কে অংশ নেন বাদি ও বিবাদি পক্ষের আইনজীবীরা। আদালত উভয় পক্ষের বক্তব্য রেকর্ড করেন। এ সময় আসামির কাঠগড়ায় বিএনপি দলীয় সাবেক সংসদ সদস্য হাবিবুল ইসলাম হাবিবসহ ৫০ জন উপস্থিত ছিলেন। সরকার পক্ষে এ মামলা পরিচালনা করেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল এসএম মুনির,ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সুজিত মুখার্জি , ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শাহিন মৃধা ও সাতক্ষীরার পিপি অ্যাড. আবদুল লতিফ। বিবাদি পক্ষে ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট শাহানারা আক্তার বকুল, অ্যাড. আবদুল মজিদ, অ্যাড. মিজানুর রহমান পিন্টু ও অ্যাড. তোজাম্মেল হোসেন। এ প্রসঙ্গে অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনালে এসএম মুনীর বলেন বুধবার অসমাপ্ত যুক্তিতর্ক অনুষ্ঠিত হবে। আমরা আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তির আশা করছি। উলে­খ্য : ২০০২ সালের ৩০ আগস্ট সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ধর্ষণের শিকার এক মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রীকে দেখতে যান শেখ হাসিনা। মামলার নথি থেকে জানা যায়, সাতক্ষীরা থেকে যশোর যাওয়ার পথে যশোর -সাতক্ষীরা সড়কের কলারোয়ায় বিএনপি অফিসের সামনে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে বোমা হামলা চালানো হয়। গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়। হামলায় সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান ও বেশ কয়েকজন সাংবাদিক আহত হন। পরে কলারোয়া উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোসলেম উদ্দিন এ ঘটনায় কলারোয়া থানায় মামলা করেন। এই মামলা প্রথম দফায় খারিজ হয়ে যাবার পর নতুন করে ২০১৪ সালে তা পুনরুজ্জীবিত হয়। এই মামলায় সাবেক সংসদ সদস্য হাবিবুল ইসলাম হাবিবসহ ৫০ জনের বিরুদ্ধে চার্জশীট দেয় পুলিশ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ