1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১, ০৯:৪২ অপরাহ্ন

সাতক্ষীরায় জালিয়াতি ও প্রতারণার মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে প্রতারকের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৯ জানুয়ারী, ২০২১
  • ১০৮ বার পড়া হয়েছে

শেখ আফজাল হোসেন, সাতক্ষীরা : গতকাল শুকবার সাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি উপজেলার সদর ইউনিয়নের হাড়িভাঙ্গা স্কুল মাঠ চত্বরে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকাবাসী উক্ত ইউনিয়নের সাবেক সংরক্ষিত ইউপি সদস্য মিনতী রানী সরকার ও তার স্বামী গোষ্ট বিহরী সরকারের দুর্নীতির বিরুদ্ধে মানবন্ধন করে। এই মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সাবেক ইউপি সদস্য সরকার গৌরপদ, স্থানীয় চাঁদখালী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক প্রসাদ কুমার রায়, ভুক্তভোগী রতন সরকার, প্রদীপ সরকার, দীপঙ্কর মল্লিক, সবিতা সরকার, গোপী মন্ডল ও জয়ন্তী সরকার। ভুক্তভোগীরা তাদের বক্তব্যে বলেন ২০১৩ ইং সালে ৬নং আশাশুনি সদর ইউনিয়নের ৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য ছিলেন এবং তার স্বামী গোষ্ট বিহরী সরকার একই ইউনিয়নের সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে উভয়ই যোগসাজসে এলাকার দরিদ্র ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির জনগণকে অল্প খরচে সরকারি ঘর, ডিপ টিউবওয়েল ও স্বাস্থ্য সম্মত ল্যাট্রিন দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে তারা বিভিন্ন সময়ে, বিভিন্ন দফায়, বিভিন্ন খাতে ও বিভিন্ন সময়ে আমাদেরকে বলে বিভিন্ন দলীয় নেতা ও জেলা পরিষদে কর্মকর্তাদের টাকা দিতে হবে অনুদানগুলো ছাড়ানো জন্য আমরা কোন উপায় না পেয়ে আমরা তাদেরকে ২০১৩ সাল থেকে ২০২০ এর জানুয়ারি পর্যন্ত জনগণের নগদ ১০ লক্ষ ৭৯ হাজার টাকা ঘর দেওয়ার নাম করে, ১৮ জনের নিকট হতে ৫ লক্ষ ৮১ হাজার টাকা ল্যাট্রিন দেওয়ার নাম করে ৭ জনের নিকট হতে নগদ ১৭ হাজার ৫ শত টাকা এবং ৩৯ জনের নিকট হতে ডিপ টিউবওয়েল দেওয়ার নাম করে নগদ ৩ লক্ষ ৮ হাজার টাকা সর্বমোট ১৯ লক্ষ ৮৫ হাজার ৫ শত টাকা হাতিয়ে নেয়। জয়ন্তী সরকার বলেন আমি এলাকায় বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ করে আসছি। আমি দীর্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন এনজিও যেমন ওয়ার্ল্ড ভিশন, সাস, ব্র্যাক ইত্যাদিতে চাকরি করে ছোট শিশুদের লেখাপড়া থেকে শুরু করে অন্যান্য উন্নয়নমূলক কাজ করে মানুষের সেবা দিয়ে আসছি। অতি কৌশলে তারা স্বামী-স্ত্রী মিলে আমার পার্শ্ববর্তী সব অসহায় লোকদের সুপরিকল্পিতভাবে আমার উপস্থিতিতে আমার কাছে টাকা জমা দিতে বলেন। পরবর্তীতে আমার নিকট অন্যান্য লোকজন ডিপ টিউবওয়েলের টাকা আমার কাছে জমা দেন এবং আমি তা সবার সম্মুখে মিনতী রানী সরকারের নিকট জমা দেই। এভাবে একের পর এক ঘর যখন, টিউবওয়েল বা ল্যাট্রিন না দেওয়ায় তখন আমি ও গ্রাহকগণ জিনিসপত্রের কথা বললে তারা বার বার শুধু সময় নিতে থাকে। তাদের বাড়িতে গেলে তারা কিসের টাকা কিসের জিনিস বলে আমাদের হুমকি দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। তারা একই গ্রামের মৃত সুজিত সরকার এর পুত্র কোমল সরকার নিকট থেকে একই কায়দায় বিভিন্ন লোকদেরকে প্রলোভন দেখিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলেও অভিযোগ রয়েছে। এলাকাবাসী আরও জানায় তারা স্বামী স্ত্রী কৌশলে এলাকার নিরীহ ব্যক্তিদের নিকট থেকে টাকা হাতিয়ে নিয়ে ঢাকা ও কুমিল্লা শহরে ছেলেকে শোরুমের ব্যবসা ও ঢাকাতে ফ্লাট ক্রয় করেছে। এছাড়াও সে ভারতেও জায়গা জমি ও বাড়ি তৈরি করেছে বলে জানা গেছে। এছাড়াও মেয়ে জামাইয়ের নামে গাড়ি বাড়ি, চাকরি ও অন্যান্য বিলাসিতার খাতে ব্যয় করেছেন। সবাইকে ভিখারী করে রাস্তায় বসিয়েছে। এব্যাপারে জয়ন্তী রানী সরকার গত ০৫/০১/২০২১ তারিখে জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, র‌্যাব, ডিজিএফআই ও বিভিন্ন দপ্তরে মিনতী রানী সরকার ও তার স্বামী গোষ্ট বিহারী সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ