1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:২৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কাশেমপুরে মাদানী জামে মসজিদের ছাদ ঢালাইয়ের উদ্বোধন দৈনিক দৃষ্টিপাত পত্রিকার সম্পাদকের সহধর্মীনির অকাল মৃত্যুতে সাতক্ষীরা সাংবাদিক ইউনিয়নের শোক কলারোয়ার যুগিখালীতে ৪র্থ বার বিনা প্রতিন্দীতায় নির্বাচিত ইউপি সদস্য মফিজুল ইসলাম দৈনিক দৃষ্টিপাত পত্রিকার সম্পাদকের সহধর্মীনির অকাল মৃত্যুতে এমপি রবি’র শোক ছোট ভাইকে উদ্ধারের দাবীতে বড় ভাইয়ের সংবাদ সম্মেলন সাতক্ষীরায় ওর্য়াড পুলিশিং কমিটির সভা অনুষ্ঠিত দেবহাটা প্রেসক্লাবের বার্ষিক সভায় বর্তমান কমিটির মেয়াদ বর্ধিত; সদস্য অন্তর্ভূক্তির লক্ষ্যে উপ-কমিটি খলিশাখালি দখলের এক সপ্তাহ; জমি পুনরুদ্ধারে দখলচ্যুত মালিকদের সংবাদ সম্মেলন জেলা আলীগের সাধারন সম্পদক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নজরুল ইসলামের সাথে সাংবাদিক ইউনিয়নের শুভেচ্ছা বিনিময় খলিশাখালিতে প্রতিবাদ সমাবেশ, প্রশাসনের সহযোগীতা চান ভূমিহীনরা

নন্দীগ্রামে ওমরপুর সড়কপাড়ার ২৮ পরিবারের আত্মহত্যার হুমকি

  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ৬ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৯৯ বার পড়া হয়েছে

বগুড়া প্রতিনিধি : বগুড়ার নন্দীগ্রামে ওমরপুর সড়কপাড়ার বসবাসকারী ২৮ পরিবারের আত্মহত্যার হুমকি দিয়ে অবিলম্বে পুনর্বাসনের দাবি জানিয়েছে। দীর্ঘদিন পূর্বে নন্দীগ্রাম পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের ওমরপুর মহাসড়কের পাশের জায়গায় গড়ে উঠে ওমরপুর সড়কপাড়া। সেখানে হতদরিদ্র মানুষের বসবাস। কেউ মাছ বিক্রি করে, কেউ দিনমজুরের কাজ করে, আবার কেউ ভিক্ষা করে জীবন জীবিকা নির্বাহ করে থাকে। তাদের নিজস্ব কোনো প্রকার জায়গা-জমি নেই। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে তারা মহাসড়কের পাশে বসবাস করে আসছে। বর্তমানে বগুড়া-নাটোর মহাসড়ক প্রসস্থকরণ কাজ চলছে। এমতাবস্থায় তাদের ১০ দিনের সময় বেঁধে দিয়ে মহাসড়কের পাশে থেকে বসতবাড়ি সরে নেয়ার জন্য সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর হতে নির্দেশ দিয়েছে। তারা এখন কোথায় যাবে, কোথায় থাকবে তার কোনো ঠাঁই ঠিকানা নেই। ৬ জানুয়ারি পুনর্বাসনের দাবিতে তারা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেয়। এরপর সরকারি ঘর বা গুচ্ছগ্রাম বরাদ্দ চেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত আবেদন করেছে। লিখিত আবেদনে উল্লেখ করেন, ১০ দিনের মধ্যে তাদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা না করলে ২৮ পরিবারের সদস্যরা বিছানা বালিশ নিয়ে মহাসড়কের উপর শুয়ে পড়বে। তাদের দাবি সরকার হয় তাদের বসবাস করার জায়গা দিবে, না হয় তাদের উপর দিয়ে গাড়ি চালিয়ে চিরতরে ঘুমিয়ে দিবে। এক কথায় তারা আত্মহত্যা করার কথা বলেছে। এ বিষয়ে ওমরপুর সড়কপাড়ার বসবাসকারী আবু সাঈদ, আবু বক্কর ও লাল চাঁন জানান, আমাদের কোনো ঠাঁই ঠিকানা নেই। তাই আমরা এমন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছি। সরকার যদি আমাদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করে তাহলে আমরা উপকৃত হবো। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আখতারের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, ওমরপুর সড়কপাড়ার বসবাসকরীরা সরকারি ঘর বা গুচ্ছগ্রাম চেয়ে লিখিত আবেদন করেছে। বিষটি আমরা দেখবো।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ