1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:০২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কাশেমপুরে মাদানী জামে মসজিদের ছাদ ঢালাইয়ের উদ্বোধন দৈনিক দৃষ্টিপাত পত্রিকার সম্পাদকের সহধর্মীনির অকাল মৃত্যুতে সাতক্ষীরা সাংবাদিক ইউনিয়নের শোক কলারোয়ার যুগিখালীতে ৪র্থ বার বিনা প্রতিন্দীতায় নির্বাচিত ইউপি সদস্য মফিজুল ইসলাম দৈনিক দৃষ্টিপাত পত্রিকার সম্পাদকের সহধর্মীনির অকাল মৃত্যুতে এমপি রবি’র শোক ছোট ভাইকে উদ্ধারের দাবীতে বড় ভাইয়ের সংবাদ সম্মেলন সাতক্ষীরায় ওর্য়াড পুলিশিং কমিটির সভা অনুষ্ঠিত দেবহাটা প্রেসক্লাবের বার্ষিক সভায় বর্তমান কমিটির মেয়াদ বর্ধিত; সদস্য অন্তর্ভূক্তির লক্ষ্যে উপ-কমিটি খলিশাখালি দখলের এক সপ্তাহ; জমি পুনরুদ্ধারে দখলচ্যুত মালিকদের সংবাদ সম্মেলন জেলা আলীগের সাধারন সম্পদক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নজরুল ইসলামের সাথে সাংবাদিক ইউনিয়নের শুভেচ্ছা বিনিময় খলিশাখালিতে প্রতিবাদ সমাবেশ, প্রশাসনের সহযোগীতা চান ভূমিহীনরা

ইউএনও’র সাহসী পদক্ষেপে উদ্ধার হলো সড়কের কোটি টাকার সরকারি সম্পত্তি

  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ১২১ বার পড়া হয়েছে

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি : পাইকগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকীর সাহসী পদক্ষেপে সড়কের কোটি কোটি টাকার সরকারি সম্পত্তি উদ্ধার হওয়ার পাশাপাশি যানজট নিরসন হচ্ছে জিরোপয়েন্ট এলাকার। চলমান উচ্ছেদের অংশ হিসেবে শনিবার দিনভর সার্ভেয়ারের মাধ্যমে মাপ দিয়ে সড়কের জায়গা নির্ধারণ পূর্বক লাল পতাকা টাঙিয়ে দেওয়া হয় এবং একই সাথে সব ধরণের অবৈধভাবে নির্মিত অবকাঠামো স্থাপনা সরিয়ে নেওয়ার জন্য নির্দেশনা প্রদান করেন ইউএনও খালিদ হোসেন। উল্লেখ্য, সড়ক ও জনপথ বিভাগের পৌর সদরের জিরোপয়েন্ট এলাকা থেকে শিববাটী ব্রীজ পর্যন্ত প্রধান সড়কটি ১১০ ফুট এলাকা জুড়ে অধিগ্রহণ করা হয়। অধিগ্রহণকৃত জায়গার মধ্য থেকে ১৮ ফুট পিচের রাস্তা নির্মাণ করা হয়। সড়কের দু‘পাশের অবশিষ্ট জায়গায় দোকানপাট সহ বিভিন্ন স্থাপনা গড়ে উঠলে বেদখল হয়ে যায়। এর ফলে একদিকে সড়ক ও জনপথ বিভাগ তাদের কোটি কোটি টাকার সম্পত্তি অবৈধ দখলদারদের অনুকূলে চলে যায়। অপরদিকে সড়কের দু‘পাশে স্থাপনা গড়ে উঠায় জনগুরুত্বপূর্ণ জিরোপয়েন্ট এলাকায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। অবশেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে সাহসী পদক্ষেপ নেন। গত কিছুদিন আগে প্রশাসনের এ কর্মকর্তা সড়কের দু’পাশের টোঙ দোকান সহ বিভিন্ন স্থাপনা উচ্ছেদ করলেও বড় বড় অবকাঠামো রয়ে যায়। সর্বশেষ চলমান উচ্ছেদের অংশ হিসেবে সড়কের সার্ভেয়ারের মাধ্যমে মাপ দিয়ে সড়কের জায়গা নির্ধারণ করে লাল পতাকা টাঙিয়ে দেওয়া হয়। একই সাথে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সকল স্থাপনা ও অবকাঠামো সরিয়ে নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্টদের কঠোর নির্দেশনা দেন ইউএনও খালিদ হোসেন সিদ্দিকী। দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর ইউএনও’র হস্তক্ষেপে উদ্ধার হলো সড়কের বেদখলকৃত কোটি কোটি টাকার সরকারি সম্পদ। একই সাথে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ হওয়ায় সড়কের ওপর থেকে পার্কিং করা গণপরিবহন সরিয়ে নিয়েছে বাস মালিক সমিতি ও শ্রমিকরা। এর ফলে জনগুরুত্বপূর্ণ জিরো পয়েন্ট এলাকার যানজট অনেকাংশে নিরসন হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের এ কাজে সহযোগিতা করেছেন আরেক সাহসী কর্মকর্তা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ আরাফাতুল আলম, সড়কের উপ-সহকারী প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম ও সার্ভেয়ার মিজানুর রহমান সহ বাস শ্রমিক নেতৃবৃন্দ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ