1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:২৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
খলিশাখালিতে প্রতিবাদ সমাবেশ, প্রশাসনের সহযোগীতা চান ভূমিহীনরা পাইকগাছার আমুরকাটায় মান্নান গাজীর নৌকা প্রতীকের পথসভা অনুষ্ঠিত পাইকগাছায় বিজ্ঞান বিষয়ক কুইজ ও ৬ষ্ঠ জাতীয় বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত কপিলমুনিতে গভীর রাতে ডাকাতির পরিকল্পনাকালে ১ ডাকাত আটক সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডাঃ রুহুল কুদ্দুসের সাথে সাংবাদিক ইউনিয়নের মতবিনিময় ইভ্যালির রাসেল-শামীমা গ্রেফতার, নেওয়া হলো র‌্যাব সদর দপ্তরে এবার শিক্ষার্থীদের নিয়ে হবে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন প্রাক্তন স্বামীকে খোঁচা দিলেন মাহিয়া মাহি? অসহায় মানুষের মাঝে রোটারী ক্লাব অব জাহাঙ্গীরনগর ঢাকা’র পক্ষ থেকে খাদ্য সহায়তা বিতরণ তালা সদরে লাঙ্গলের পথসভায় জনসমুদ্র

অবশেষে অপসারণ করা হলো পানি সরবরাহের সরকারি খালের বাঁধ ও ভরাটকৃত মাটি

  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ১১৮ বার পড়া হয়েছে

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি : অবশেষে পাইকগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ আরাফাতুল আলমের সাহসী পদক্ষেপে উদ্ধার হলো জনসাধারণের পানি সরবরাহের সরকারি খাল। মঙ্গলবার সকালে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে বাঁধ, খালের ভরাটকৃত মাটি ও টিনের ঘেরা অপসারণ করা হয়। এর ফলে এলাকার ও পানি নিষ্কাসন ব্যবস্থা সুগম হয়।
উল্লেখ্য, পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের জিরোপয়েন্ট সংলগ্ন সরল এলাকায় একটি সরকারি খাল রয়েছে। ওই খালের মাধ্যমে শিববাটী স্লুইচ গেট হয়ে শিবসা নদীতে অত্র এলাকার পানি নিষ্কাসন হয়ে থাকে। শরিফা খাতুন নামে এক আইনজীবী সহ এলাকার কতিপয় ব্যক্তিরা উক্ত খাল ভরাট, ঘেরা-বেড়া এবং বাঁধ দিয়ে নিজেদের ব্যবহারের জন্য দখলে নেয়। এর ফলে এলাকার পানি নিষ্কাসন ব্যবস্থা প্রায় সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে যায়।

এলাকার পানি নিষ্কাসন ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে এলাকাবাসী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবিএম খালিদ হোসেনের নির্বাহী আদালতে মামলা করে। অপরদিকে বিভিন্ন অভিযোগের ভিত্তিতে ইউএনও এবং এসিল্যান্ড একাধিকবার ঘটনাস্থলে গিয়ে খালের ভরাটকৃত মাটি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে অপসারণ করে নেওয়ার জন্য ওই আইনজীবী সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে কঠোর নির্দেশনা প্রদান করেন। অবশেষে সোমবার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী আদালতে দায়েরকৃত অভিযোগের ভিত্তিতে জনস্বার্থে ভরাটকৃত মাটি ও বাঁধ অপসারণ সহ দখলকৃত খাল উদ্ধারে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ আরাফাতুল আলমকে আদেশ দেন। আদালতের আদেশের পরের দিন অর্থাৎ মঙ্গলবার সকালে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে অপসারণ কাজ শুরু করেন এসিল্যান্ড আরাফাতুল আলম। তিনি পৌরসভা, পুলিশ ও আনসার ভিডিপি সহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতায় খালের বাঁধ কর্তন, টিনের ঘেরা-বেড়া ও ভরাটকৃত মাটি অপসারণ করেন। যদিও সম্পূর্ণ অপসারণ করতে আরো দু’একদিন লাগতে পারে বলে ধারণা করছেন এসিল্যান্ড আরাফাতুল আলম। জনস্বার্থে এ কাজ করতে যারা সহযোগিতা করেছেন তাদের সকলকে ধন্যবাদ জানান স্থানীয় প্রশাসন। অপরদিকে এলাকার বৃহৎ মানুষের প্রয়োজনে পানি নিষ্কাসন ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় সাহসী পদক্ষেপ গ্রহণ করায় ইউএনও এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী এবং এসিল্যান্ড আরাফাতুল আলমকে সাধুবাদ জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ