1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ১২:৫০ অপরাহ্ন

গভীর রাতে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের বসতবাড়ীর জায়গা জবর-দখলের চেষ্টা

  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ১৩৮ বার পড়া হয়েছে

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি : পাইকগাছায় মুক্তিযোদ্ধার বসতবাড়ীর জায়গা জবর দখল চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। প্রতিপক্ষরা রোববার গভীর রাতে পৌর সদরের বাতিখালীস্থ মুক্তিযোদ্ধা ও প্রাক্তন অধ্যাপক মরহুম এসএম জামাত আলীর বসতবাড়ীর জায়গা জবর দখলের চেষ্টা করে। এ ঘটনায় পুলিশ একজনকে আটক করে বলে জানা গেছে।
প্রাপ্ত অভিযোগে জানা গেছে, পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড বাতিখালী এলাকায় নিজেদের ক্রয়কৃত ০.৪৬৫০ একর সম্পত্তির ওপর বসতবাড়ী নির্মাণ করে বসবাস করে আসছে পাইকগাছা সরকারি কলেজের প্রাক্তন অধ্যাপক ও মুক্তিযোদ্ধা মরহুম এসএম জামাত আলীর পরিবার বর্গ। জামাত আলীর ছেলে আব্দুল্লাহ আল-মামুন জানান, ০৩/০৩/১৯৭৫ সালে রমেশ রঞ্জন দেবনাথের নিকট থেকে ১৭০৪/৭৫ নং কোবলা দলিল মুলে বাতিখালী মৌজায় সিএস ৩৬ ও এসএ ১৩৯ খতিয়ানে এসএ ১৩৫, ১৩৬ ও ১৩৮ নং দাগে মোট ৬.৫৭ একর জমির মধ্য হতে ০.৪৯৫০ একর জমি আমার পিতা এসএম জামাত আলী ও চাচা এসএম শামছুর রহমানের নামে ক্রয় করা হয়। পরবর্তীতে ১৯৯০ সালে কালিপদ ও শৈলন্দ্রনাথ এর নিকট থেকে আমার পিতা মাতা হালিমা খাতুনের নামে ০.০৫ একর সম্পত্তি কোবলা দলিল মুলে ক্রয় করেন। এরপর চাচা এসএম শামছুর রহমানের নামীয় ০.২৪৭৫ একর সম্পত্তি ২৫/০৬/১৯৮৭ ইং তারিখে ৫৯৮১ নং কোবলা দলিল মুলে আমার পিতার নামে রেজিস্ট্রি করে দেয়। দলিলটি সম্পাদনা করা হয় ৩১/০৩/১৯৮৭ ইং তারিখে। একই জমি চাচা তার দ্বিতীয় স্ত্রী শাহানাজ পারভীনের নামে ১১/০৪/১৯৮৭ ইং তারিখে ৩৩৪৬/৮৭ নং দলিল মুলে হেবাদলিল করে দেয়। এই দলিলটি একই তারিখে সম্পাদনা এবং রেজিস্ট্রি করা হয়। ক্রয় সূত্রে আমাদের অনুকূলে মোট সম্পত্তি হয় ০.৪৬৫০ একর। যা ০১/০৩/২০১৪ ইং তারিখে ৬৩২/১৩-১৪ নং নামপত্তন কেসের মাধ্যমে আমার পিতার নামে নামপত্তন হয়। উক্ত সম্পত্তি ১৯৭৫ সাল থেকে অধ্যবধি ৪৫ বছর আমরা পাঁকা বসতবাড়ী নির্মাণ করে শান্তিপূর্ণভাবে ভোগ দখল করে আসছি। খাজনা দাখিলাও পরিশোধ করা রয়েছে। বর্তমান জরিপেও ০.৪২৫০ একর পিতার নামে রেকর্ড হয়েছে। এদিকে ১৪/১০/২০১৯ইং তারিখে প্রতিপক্ষ চাচী শাহানাজ পারভীন নামপত্তন বাতিলের আবেদন জানিয়ে উপজেলা ভূমি অফিসে ০৭/১৯-২০ নং মিসকেস করেছে। নামপত্তন এ কেসটি বর্তমানে চলমান রয়েছে। যার অংশ হিসেবে ভূমি অফিস থেকে সোমবার দখল সংক্রান্ত বিষয়ে সরেজমিন তদন্ত করার দিনক্ষন নির্ধারণ ছিল। প্রতিপক্ষরা নিজেদের দখল দেখানোর জন্য রোববার দিনগত রাত ২টার দিকে আমাদের ভোগ দখলীয় বসতবাড়ীর জায়গা জবর দখলের চেষ্টা করে। জামাত আলীর ছেলে আরো জানান, আমার পিতা এবং চাচা জীবিত থাকা অবস্থায় ৩৩ বছর তাদের মধ্যে সুসম্পর্ক ছিল এবং এই সম্পত্তি নিয়ে দু’জনের মধ্যে কখনো বিরোধ দেখা যায়নি। এ ব্যাপারে এসএম জামাত আলীর জামাতা নজরুল ইসলাম জানান, আমাদের বসতবাড়ীর সামনে পাঁকা প্রাচীর থাকলেও কিছু জায়গায় বাঁশের ঘেরা রয়েছে। হঠাৎ রাত ২টার দিকে শব্দ শুনে ঘর থেকে বের হয়ে দেখি প্রতিপক্ষ শাহানাজ পারভীনের ছেলে ইমরান সহ ৮-১০ জন লোক ঘেরা ভেঙ্গে বসতবাড়ীর জায়গা জবর দখল করার চেষ্টা করছে। তাৎক্ষনিকভাবে বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে তারা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় পুলিশ একজনকে আটক করে। এদিকে পৌর সদরের একজন প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধার বসতবাড়ীর জায়গা গভীর রাতে জবর দখল চেষ্টার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মুক্তিযোদ্ধার পরিবার ও সচেতন এলাকাবাসী।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ