1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০৪:৫০ পূর্বাহ্ন

মিথ্যা মামলা হতে অব্যাহতি চেয়ে মায়ের সংবাদ সম্মেলন

  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ১৫ নভেম্বর, ২০২০
  • ৬৩ বার পড়া হয়েছে

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : কলারোয়ায় মিথ্যা মাদক মামলার দায় হতে ইজিবাইক চালকপুত্রের অব্যাহতি চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভুক্তভোগীর নব মুসিলমা মাতা খুকু মনি। তিনি কলারোয়া উপজেলার বাঘাডাঙ্গা গ্রামের খায়রুজ্জামানের স্ত্রীর। রবিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের আব্দুল মোতালেব মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন তিনি।
লিখিত অভিযোগে তিনি বলেন, আমি একজন অসহায় নিরিহ নব মুসলিম মহিলা। ৩০/৩৫ বছর পূর্বে হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করি। স্বামী খায়রুজ্জামানের ঔরসে আমার গর্ভে ২ কন্যা এবং একটি পুত্র সন্তান জন্ম গ্রহণ করে। প্রায় ২০ বছর পূর্বে আমার স্বামী আমাদের ছেড়ে কোথায় চলে যান তা আমাদের আজও অজানা। একদিকে নব মুসলিম অন্যদিকে স্বামী পরিত্যাক্ত হয়ে অন্যের বাড়িতে কাজ করে, মানুষের কাছ থেকে সাহায্য চেয়ে ৩ সন্তানকে বুকে নিয়ে অতিকষ্টে বেঁচে আছি। অর্থের অভাবে একমাত্র ছেলেকে লেখাপড়া করাতে না পারলেও অন্তত তাকে চুরি, মাদক গ্রহন, মাদক ব্যবসা এবং অন্যের ক্ষতি করার শিক্ষা তাকে দেইনি। আমার একমাত্র পুত্র ইকরামুল হোসেন অত্র এলাকায় একজন নম্রভদ্র, নিরিহ এবং সর্ব মহলে প্রশংসিত পরহেজগার যুবক হিসেবে পরিচিত। জীবিকার জন্য বীরমুক্তিযোদ্ধা বেলাল হোসেনের ইজিবাইক ভাড়া চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে। আমার পুত্র সারাদিন ইজিবাইক চালিয়ে রাতে ওই মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে চার্জে রেখে বাড়ি যায়। আর পরের দিনে আবার ইজিবাইক নিয়ে রাস্তায় বের হয়। প্রতিদিনের ন্যায় গত ০৯/১০/২০২০ তারিখে ভোরে বাড়ি থেকে বের হয়ে মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে ইজিবাইক নেওয়ার উদ্দেশ্যে যাওয়া মাত্রই আমার পুত্র ইকরামুলকে এলাকার কিছু মাদক ব্যবসায়ী মিথ্যাভাবে ফাঁসিয়ে দেয়। আমার পুত্র হার্ডের রোগি এবং এ্যাপেন্ডিস অপারেশনের রোগী। এরপর একটি মিথ্যা মাদক ব্যবসার গল্প সাজিয়ে আমারপুত্র কে ৩ নং আসামী করে জেল হাজতে প্রেরণ করে। এঘটনায় বীরমুক্তিযোদ্ধা বেলাল হোসেনসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ একজন অসহায় নিরিহ যুবককে এভাবে নির্যাতন এবং মামলায় ফাঁসানোর বিষয়ে প্রতিবাদও করেন। আমার পুত্র মাদক ব্যবসা তো দূরের কথা একটি বিড়ি সিগারেটও কোনটি মুখে দেইনি। আমি একজন নব মুসলিম অসহায় নিরিহ মা। আমার কলিজার টুকরাকে এভাবে মারপিট করে, মিথ্যা মামলায় কারাগারে পাঠানোর ঘটনা এলাকায় ছড়িয়ে পড়ার পর এলাকার শত শত মানুষ আমার পুত্র ইকরামুলকে ওই মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়ার দাবিতে গণস্বাক্ষরসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। সকলেই একটাই কথা বলছেন যারা প্রকৃত ব্যবসায়ী, মাদক সেবী তাদের না ধরে বা অন্য কোন ছেলেকে না ধরে এলাকার সব চেয়ে নম্রভদ্র পরেজগার যুবককে কেন এভাবে ফাঁসানো হলো। এলাকাবাসী অবিলম্বে ওই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন এবং মিথ্যা মামলার দায় হতে অব্যাহতির দাবিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ