1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:০০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
সাতক্ষীরা জেলা পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও সদস্যবৃন্দের সংবর্ধনা সাতক্ষীরার প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা প্রয়াত মমতাজ আহমেদ এঁর কর্মময় জীবনের উপর আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠান সাতক্ষীরায় ৩১তম আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস ও ২৪তম জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা সাতক্ষীরা জেলা ইমাম পরিষদের উদ্যোগে ইমাম সম্মেলন অনুষ্ঠিত দেবহাটায় প্রতিবন্ধী দিবস পালিত পারুলিয়া ইউপি কাপ ফাইনালে পিডিকে মিতালী সংঘকে হারিয়ে মাহমুদপুরের জয় পাইকগাছায় আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস পালিত কাথন্ডা আমিনিয়া আলিম মাদ্রাসার নতুন সভাপতি প্রকৌশলী শেখ তহিদুর রহমান ডাবলুকে শুভেচ্ছা পাইকগাছা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে আওয়ামী প্যানেলের জয়লাভ : সভাপতি – পঙ্কজ, সম্পাদক – তৈয়ব এগিয়ে চলছে পাইকগাছা-কয়রা-খুলনা সড়কের উন্নয়ন কাজ

‘উপকূলীয় এলাকার বেড়িবাঁধ মজবুতকরণে বড় প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে’

  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০২০
  • ১৪১ বার পড়া হয়েছে

ডেস্ক রিপোর্ট : সাতক্ষীরার আশাশুনিতে ঘূর্ণিঝড় আম্ফান ও করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছেন জার্মান রাষ্ট্রদূত হিপ্টার ফারিনহোল্টজ। উপজেলার শ্রীউলা ইউনিয়নে জার্মান অ্যাম্বেসির পক্ষ থেকে এ ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়। আজ শনিবার সকালে উপজেলার মাড়িয়ালা বাজার মোড়ে ২৫০০ পরিবারের মাঝে ২৫ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, সাবান ও পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট বিতরণ করেন। ত্রাণ বিরতণকালে তিনি বলেন, বাংলাদেশে জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত জনগণের ঘুরে দাঁড়ানোর জন্যে ৩০০ ইউরো প্রদন করেছে জার্মান সরকার। সাতক্ষীরার উপকূলীয় অঞ্চলগুলি বেশ ঝুঁকিপূর্ণ। আমরা জার্মান সরকারের পক্ষ থেকে বাংলাদেশের দুর্যোগপ্রবণ সকল এলাকার জন্য বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে আর্থিক সহায়তা দিয়ে যাচ্ছি। সাতক্ষীরার উপকূলীয় এলাকায় বাড়তি সহায়তা হিসেবে আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত ৬ হাজার পরিবারের জন্য খাদ্য সহায়তা বরাদ্দ করা হয়েছে। আমাদের নিজস্ব স্বেচ্ছাসেবক ও এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধারা ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের তালিকা প্রস্তুত করেছেন। ইতোমধ্যে আশাশুনি, শ্যামনগর ও দেবহাটা উপজেলায় ১ম পর্যায়ে ৩ হাজার পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে খুলনা বিভাগের উপকূলীয় অঞ্চলে ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ মজবুতকরণের লক্ষ্যে সবচেয়ে বড় একটি প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন এনএসআই এর ডিডি জাকির হোসেন, এসপি সার্কেল (দেবহাটা) ইয়াছিন আলী, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহীন সুলতানা, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হান্নান, ইউপি চেয়ারম্যান আবু হেনা সাকিল, শেখ জাকির হোসেন প্রমুখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ