1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১১:৫৫ পূর্বাহ্ন

চালতেতলা জামে মসজিদে সাবেক সভাপতির বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের প্রতিবাদ করায় নব কমিটির বিরুদ্ধে অপ-প্রচার

  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১০ নভেম্বর, ২০২০
  • ১২৬ বার পড়া হয়েছে

দেবহাটা প্রতিনিধি: দেবহাটার চালতেতলা পশ্চিমপাড়া জামে মসজিদে সাবেক সভাপতি হযরত হাজীর বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের প্রতিবাদ ও অপ-প্রচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার বিকাল ৪টায় বদরতলা বাজারে মসজিদ কমিটির সভাপতির ব্যাবসায়িক কার্যালয়ে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সভাপতি নুরুজ্জামান গাজী। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, চালতেতলা গ্রামের মৃত কোনাই গাজীর ছেলে হযরত আলী হাজী তৎকালীন সভাপতি থাকাকালীন সময়ে মসজিদের প্রায় ৮লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করে। যা বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় প্রকাশ হয়। উক্ত সংবাদ প্রকাশ হওয়ার পর থেকে বর্তমান কমিটির বিরুদ্ধে বিভিন্ন ভাবে হয়রানি ও অপ-প্রচার চালাতে থাকে হযরত আলী।
লিখিত বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, এলাকায় হযরত আলী একজন ভন্ড, প্রতারক ও দুশ্চরিত্র ব্যক্তি। সে মসজিদের সভাপতি থাকাকালীন সময়ে নিজেকে সভাপতি, সেক্রেটারী এবং ক্যাশিয়ার বলে দাবি করেন। তাই সে মসজিদের অর্থ সম্পদের হিসাব মুসল্লীদেরকে না দিয়ে নিজের কাজে ব্যবহার করতেন। তাছাড়া হযরত আলীর মৃত মায়ের বিভিন্ন মসজিদে দানকৃত সম্পদের হারির টাকা পর্যন্ত সে নিজেই আত্মসাৎ করেছে। এছাড়া, হযরত আলী কিছুদিন পূর্বে স্থানীয় মজিদ গাজীর নামের এক ব্যক্তির জমির হারির টাকা না দেওয়ার কারনে মামলায় জেলও খেটেছে। তাছাড়া হযরত হাজীর মেজ ভাই সোহরাব গাজীর জমির হারির টাকা পর্যন্ত সে আত্মসাৎ করলে সে নিরুপায় হয়ে প্রশাসনের কাছে অভিযোগ করলে এর কিছু দিনের মধ্যে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। পরে সোহরাব গাজীর একমাত্র ছেলে আশিক ও তার চাচাত ভাই সাদ্দাম এবং আকরামকে হযরত আলী তার দলবল নিয়ে মারধর করে। হযরত আলীর বড় ভাই কোপাত গাজী সহজ সরল হওয়ায় তার সম্পত্তি হাতিয়ে নেওয়ার জন্য বিভিন্ন ষড়যন্ত চালিয়ে আসছে। তাছাড়া অসহায় সাদ্দাম ও আকরামের ভিজিডি কার্ডের চাউলের অর্ধেক চাউল প্রতিমাসে হযরত আলী জোর পূর্বক নিয়ে নেয়। উক্ত বিষয়ে মসজিদ কমিটি সহ স্থানীয়রা প্রতিবাদ করতে গেলে তাদেরকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি ধামকি দিয়ে চলেছে এই হযরত আলী। তাই এলাকার চিহ্নিত ধোকাবাজ এই হযরত আলীর হাত থেকে রক্ষা পেতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মসজিদ কমিটির সহ-সভ্পাতি মিলন গাজী, সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল গাজী, কোষাধ্যাক্ষ মানিক গাজী, মসজিদের মোয়াজ্জিন মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রশিদ সহ স্থানীয়রা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ