1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ১১:৪৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বিশ্বজুড়ে ডেল্টার ঢেউ: বিভিন্ন দেশে রেকর্ড সংক্রমণ প্রশংসা পাচ্ছে অপূর্ব-মেহজাবিনের ‘অন্য এক প্রেম’ কিছু বিদেশি গণমাধ্যম দেশ ও সরকারের বিরুদ্ধে ভুল সংবাদ দেয় আশাশুনিতে সাতক্ষীরা জেলা পরিষদ সদস্য সাজাপ্রাপ্ত আসামী দেলোয়ার গ্রেপ্তার দেবহাটায় নেট-পাটা অপসারণে ইউএনও’র অভিযান, জরিমানা শার্শায় এক সন্তানের জননীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ সাতক্ষীরা সামেক হাসপাতালে ইন্টার্ন ডাক্তারদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এমপি রবি ভারী বর্ষণে প্লাবিত জনগণের পাশে সোহেল বাল্য বিবাহ; ছেলে, বর-কনের অভিভাবক ও পুরোহিতকে জরিমানা কপিলমুনিতে জনসম্মুখে টানানো হলো ওয়ারেন্টভুক্ত আসামীদের নামের তালিকা

আশাশুনির মিত্র তেঁতুলিয়া হাইস্কুলের সুনাম ক্ষুন্ন করার পায়তারা, শিক্ষকদের জরুরী সভা অনুষ্ঠিত

  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৯ নভেম্বর, ২০২০
  • ৭৬ বার পড়া হয়েছে

আহসান উল্লাহ বাবলু, আশাশুনি প্রতিনিধি : আশাশুনির মিত্র তেঁতুলিয়া পিএসএস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকালে স্কুল হলরুমে প্রধান শিক্ষক এস.এম আবু ছাদেকের সভাপতিত্বে উক্ত সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের লেখাপড়ার গুণগত মান, শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের নির্দেশনার আলোকে অনলাইন ক্লাস গ্রহণ, এ্যাসাইনমেন্ট প্রদান, বিদ্যালয়ের সার্বিক পরিবেশ সহ পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আলোচনা করা হয়। সভায় গত ০৯ নভেম্বর কয়েকটি পত্রিকায় আশাশুনির বিভিন্ন মাধ্যমিক বিদালয়ে পরীক্ষার নামে টাকা আদায় সংক্রান্ত যে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে তার একটি অংশে অত্র বিদ্যালয়ের নাম যুক্ত করা হয়েছে অথচ উল্লেখিত বিষয়টির সাথে অত্র স্কুলের কোন সামঞ্জস্যতা নেই মর্মে আলোচনা করা হয়। এ ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক এস এম আবু ছাদেক বলেন, ১৯৬৬ সালে মিত্র তেঁতুলিয়া পিএসএস স্কুলটি প্রতিষ্ঠিত হয়। এখানে প্রায় ৪ শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী লেখাপড়া করে। আমি ২০১২ সালে প্রধান শিক্ষক হিসেবে অত্র প্রতিষ্ঠানে যোগদান করি। ২০১৪ সালে এটি সেকায়েপ থেকে শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পুরস্কার প্রাপ্ত হয়। ২০২০ সালের এসএসি পরীক্ষায় এখান থেকে ১২ জন শিক্ষার্থী এ প্লাস পায়। বর্তমানে এখানে সরকারি নির্দেশনা মেনে শিক্ষার্থীদের এ্যাসাইনমেন্ট প্রদান ও গ্রহন করা হচ্ছে। তিনি বলেন, স্কুলের সার্বিক বিষয় যখন সাফল্যের পথে তখন গ্রাম্য রাজনীতির কারনে একটি মহল স্কুলের সুনাম ক্ষুন্ন করার পায়তারা চালাচ্ছে। এখানে এ্যাসাইনমেন্টর জন্য কোন টাকা গ্রহণ করা হয়নি। এ ব্যাপ্যারে পত্রিকায় আমার বক্তব্যটি যথাযথভাবে উপস্থাপিত হয়নি। এ ব্যাপারে পিটিএ সভাপতি শঙ্কর প্রসাদ ব্যানার্জি, স্কুলের ৬ষ্ঠ শ্রেনীর শিক্ষার্থী ইলিমা, সুরাইয়া, ফারহানা, মারিয়া, রাকিবুল, রুমি, সায়েরা, ৭ম শ্রেনীর শিক্ষার্থী সুমাইয়া, হাছিনা, মারুফা, উম্মে রুম্মান, শিলা খাতুন সহ আরো অনেকে জানায়, আমাদের স্কুলে এ্যাসাইনমেন্ট বাবদ আমরা কোন টাকা দেইনি/শিক্ষকরা কোন টাকা গ্রহণ করেনি। টাকা লেনদেনের প্রচার স্কুলের সুনাম নষ্ট করার পায়তারা। সভায় উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন পিটিএ সভাপতি শঙ্কর প্রসাদ ব্যানার্জি, স্কুলের সহকারি প্রধান শিক্ষক ভৈরব চন্দ্র রায়, সহকারি শিক্ষক হিরন্ময় মন্ডল, নুরুল ইসলাম, অনিতা রানী মন্ডল, ধীরাজ মোহন বাইন, সাইফুল ইসলাম, হাফিজুল ইসলাম প্রমুখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ