1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ১২:৫২ অপরাহ্ন

দুই দুর্ঘটনায় রেলের বিপর্যস্ত এক দিন

  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৭ নভেম্বর, ২০২০
  • ১০১ বার পড়া হয়েছে

ন্যাশনাল ডেস্ক : আজ শনিবার দেশের উত্তরাঞ্চল ও দক্ষিণাঞ্চল রেলের দুই জায়গায় ট্রেন দুর্ঘটনায় বিপর্যস্ত হয়েছে রেলসেবা। গাজীপুরের কালিয়াকৈর ও মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে এসব দুর্ঘটনা ঘটে। এতে দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল রেলযোগাযোগ পাঁচ ঘণ্টার জন্য বন্ধ ছিল। আর মোলভীবাজারের দুর্ঘটনার পর এ রিপোর্ট লেখা পর‌্যন্ত ঢাকা-সিলেট, সিলেট-চট্টগ্রাম রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ চির। গাজীপুরের দুর্ঘটনায় মারা গেছেন দুজন। আর শ্রীমঙ্গলে তেলবাহী ট্রেন লাইনচ্যুত হলে পাঁচটি ওয়াগনের এক লাখের বেশি লিটার তেল ছড়িয়ে পড়তে থাকে বাইরে।
কালিয়াকৈর
কালিয়াকৈরের সোনাখালী রেলক্রসিংয়ে শনিবার ভোর সাড়ে চারটার দিকে ট্রেনের সঙ্গে একটি যাত্রীবাহী বাসের সংঘর্ষ হয়। এতে বাসের দুই যাত্রী মারা যায়। আহত হয় আরও চারজন।
রেল কর্তৃপক্ষ জানায়, চিলাহাটি থেকে ঢাকাগামী নীলসাগর ট্রেন ভোর সাড়ে চারটার দিকে সোনাখালী রেলক্রসিং অতিক্রম করার সময় একটি বাসের সঙ্গে সংঘর্ষ ঘটে। এতে ট্রেনের ইঞ্জিনে আটকে যাত্রীবাহী বাসটি আধা কিলোমিটার সামনে গিয়ে রেললাইনের পাশে দুমড়ে-মুচড়ে পড়ে। ঘটনাস্থলে অজ্ঞাত এক নারী নিহত হন ও পাঁচজন আহত হন। স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মাসুদ (২৭) নামে আরও এক যাত্রীর মৃত্যু হয়। জয়দেবপুর রেলওয়ে পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবদুল মান্নান জানান, দুর্ঘটনাকবলিত বাসটি রেললাইন থেকে সরিয়ে নেওয়ার পর সকাল সাড়ে ৯টা থেকে জয়দেবপুর-উত্তরবঙ্গ রেলপথে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

শ্রীমঙ্গলে উল্টে যায় সাতটি তেলের বগি আজ দুপুর ১২টার দিকে সিলেট যাওয়ার পথে শ্রীমঙ্গলের সাতগাঁও এলাকায় লাইনচ্যুত হয় ডিজেল ও কেরোসিনবোঝাই একটি ওয়াগন ট্রেন। এতে সিলেটের সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। ওয়াগন ট্রেনের সাতটি বগি উল্টে গেলে ছড়িয়ে পড়তে থাকে তেল। আশপাশের বহু মানুষকে বালতি, পাতিল, বোতল দিয়ে তেল সংগ্রহ করে বাড়ি নিয়ে যেতে দেখা যায়। পরে তেল লুট রোধে অতিরিক্ত জিআরপি তলব করা হয়। শ্রীমঙ্গল রেলস্টেশনের সহকারী স্টেশন মাস্টার শাখাওয়াত হোসেন জানান, মালবাহী ট্রেনটির সাতটি বগি লাইনচ্যুত হয়েছে। কুলাউড়া থেকে উদ্ধারকারী ট্রেন আসছে। উদ্ধারকাজ শেষ করার পর ট্রেন যোগাযোগ স্বাভাবিক হবে। তবে উদ্ধারকাজে কত সময় লাগতে পারে কিংবা ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হতে কত সময় লাগতে পারে সে বিষয়ে কিছু জানাতে পারেননি তিনি। রাত ১০টা পর্যন্ত এ রুটে রেল চলাচল স্বাভাবিক হয়নি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ