1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৫৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
খলিশাখালিতে প্রতিবাদ সমাবেশ, প্রশাসনের সহযোগীতা চান ভূমিহীনরা পাইকগাছার আমুরকাটায় মান্নান গাজীর নৌকা প্রতীকের পথসভা অনুষ্ঠিত পাইকগাছায় বিজ্ঞান বিষয়ক কুইজ ও ৬ষ্ঠ জাতীয় বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত কপিলমুনিতে গভীর রাতে ডাকাতির পরিকল্পনাকালে ১ ডাকাত আটক সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডাঃ রুহুল কুদ্দুসের সাথে সাংবাদিক ইউনিয়নের মতবিনিময় ইভ্যালির রাসেল-শামীমা গ্রেফতার, নেওয়া হলো র‌্যাব সদর দপ্তরে এবার শিক্ষার্থীদের নিয়ে হবে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন প্রাক্তন স্বামীকে খোঁচা দিলেন মাহিয়া মাহি? অসহায় মানুষের মাঝে রোটারী ক্লাব অব জাহাঙ্গীরনগর ঢাকা’র পক্ষ থেকে খাদ্য সহায়তা বিতরণ তালা সদরে লাঙ্গলের পথসভায় জনসমুদ্র

সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ এর পূর্ণ বাস্তবায়নের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন

  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ১ নভেম্বর, ২০২০
  • ১৩০ বার পড়া হয়েছে

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি : পাইকগাছায় সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ এর পূর্ণ বাস্তবায়নের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার সকালে সংগঠনের অস্থায়ী কার্যালয়ে নিরাপদ সড়ক চাই এর চেয়ারম্যান ইলিয়াস কা নের পক্ষে লিখিত সংবাদ সম্মেলন করেন নিসচা দক্ষিণা ল শাখার সভাপতি এইচএম শফিউল ইসলাম। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, পথ যেন হয় শান্তির, মৃত্যুর নয়- এ শ্লোগানে ২৭ বছর আগে ১৯৯৩ সালের ২২ অক্টোবর সামাজিক আন্দোলন নিরাপদ সড়ক চাই নিসচা’র জন্ম। এদিন সড়ক দুর্ঘটনায় নিসচা’র প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ইলিয়াস কা নের স্ত্রী জাহানারা কা ন মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুবরণ করে। স্ত্রীকে হারিয়ে ইলিয়াস কা ন এ আন্দোলন গড়ে তোলে। সড়কে শৃংখলা ফিরে আনতে নিসচা একটি সময়োপযোগী আইনের দাবী জানিয়ে আসছিল। পাশাপাশি সড়কে আইন মানতে মানুষকে সচেতন করার ওপর জোর দেওয়া হয়। ২২ অক্টোবর নিরাপদ সড়ক দিবস ঘোষণার দাবী ছিল নিসচা’র। আমাদের লক্ষ ছিল নিরাপদ সড়কের জন্য একটি দিবসকে যদি রাষ্ট্রীয়ভাবে পালন করা যায় তাহলে জনগণের মাঝে এ বিষয়ে একটি সচেতনতা তৈরী হবে। সরকার আমাদের দাবীকে সম্মান জানিয়ে ২০১৭ সাল থেকে দিবসটি জাতীয় স্বীকৃতি দিয়েছে। সেই থেকে দিনটি যথাযোগ্য মর্যাদায় সরকারিভাবে পালিত হচ্ছে। এতে নিরাপদ সড়ক আন্দোলন আরো জোরালো হয়েছে। আমাদের দীর্ঘদিনের আরেকটি দাবী সময়োপযোগী সড়ক আইন, সেটিও পূরণ হয়েছে। এখন দরকার এ আইনের সঠিক প্রয়োগ। কিন্তু হতাশার বিষয় হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণার পরও ২০১৯ সালের ১ নভেম্বর প্রয়োগের দিন থেকেই আইনটি হোঁচট খেয়েছে। আইনটির যথাযথ প্রয়োগে বারবার বাঁধা হয়ে দাড়িয়েছে। পরিবহন সেক্টরের একটি অশুভ শক্তি। ২০১৮ সালের ২৯ জুলাই বেশ কয়েকটি মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে নিরাপদ সড়কের দাবীতে গড়ে ওঠা ছাত্র আন্দোলন এ আইনটি পাশের প্রক্রিয়াকে তরাম্বিত করে। অবশেষে কোন চাপের মুখে নতি স্বীকার না করে সরকার এ আইনটি ২০১৮ সালে জাতীয় সংসদ পাস করে। এর প্রায় ১৫ মাস পর ২০১৯ সালের ১ নভেম্বর আইনটি কার্যকর শুরু করে। প্রথম ১৪ দিন সহনীয় মাত্রায় এর প্রয়োগ ছিল। পরবর্তীতে পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের দাবীতে আইনের কয়েকটি বিষয় পরবর্তী ৬ মাস পর্যন্ত কনসিডারের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। এরপর করোনার কারণে এ আইনের যথাযথ প্রয়োগের সময়সীমা বৃদ্ধি করে এ বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত নির্ধারণ করা হয়। আমাদের চূড়ান্ত প্রত্যাশা দূর্ঘটনামুক্ত সড়ক, নিরাপদ সড়ক প্রতিষ্ঠা করা। যতদিন এটি পূরণ না হবে ততদিন আমরা সড়কে আছি এবং থাকবো। আইন প্রয়োগ নিয়ে চলমান সংকট উত্তরণে আইনটির যথাযথ বাস্তবায়নের বিকল্প নেই। নিসচা’র পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে সরকারের কাছে আগামী ১ জানুয়ারী ২০২১ সাল হতে সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ এর পূর্ণ বাস্তবায়নের দাবী জানানো হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ