1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ১০:১০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :

তালায় ৩ অসহায় নারীর উঠোন’র জমি দখলের চেষ্টা : প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা

  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ৪ মার্চ, ২০২০
  • ৫৯ বার পড়া হয়েছে

এসএম বাচ্চু,তালা: তালার কাজীডাঙ্গা গ্রামে অসহায় ও দরিদ্র ৩জন নারীর বসত ঘরের জমি জোর দখল করে পাকা ঘর নির্মানের চেষ্টা চালানো হয়েছে। এসময় গ্রামের লোকজন সহ সংশ্লিষ্ট জমি মালিক বাঁধা দেয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে দূর্বৃত্তরার প্রকাশ্যে নিজেদের ঘর ভেঙ্গে মামলা করার হুমকি দেয় বলে অভিযোগ উঠেছে। এঘটনায় অসহায় বিধবা মা সুফিয়া বেগম সহ তার দুই মেয়ে পুলিশ প্রশাসনের সু-দৃষ্টি কামনা করেছেন। জানাগেছে, উপজেলার কাজীডাঙ্গা গ্রামের আলাউদ্দীন শেখ তার ভাই রহিম বক্স শেখ এবং বোন পৈত্রিকসূত্রে কাজীডাঙ্গা মৌজার এস.এ ১১৯ খতিয়ানের ২৩৩ নং দাগে ভিটে-বাড়ির ১ একর ১৫ শতক জমির মালিক। যা তারা সকলে হিসাব অনুযায়ী ভোগদখল করছেন। এদেরমধ্যে আলাউদ্দীন শেখ ২টি কন্যা এবং স্ত্রী রেখে মারা যাওয়ায় তার জমি থেকে ফারাজি সূত্রে প্রাপ্ত অংশ রহিমবক্স শেখ নিজ দখলে নিয়েনেন। এমতাবস্থায় মৃত আলাউদ্দীর শেখ’র স্ত্রী দরিদ্র সুফিয়া বেগম তার দুই অসহায় মেয়ে হাসিনা বেগম এবং হারুনা বেগমকে নিয়ে ওই ভিটেমাটিতে বসবাস করছেন।

হতদরিদ্র সুফিয়া বেগম বলেন, ১৪ শতক জমিতে দুই মেয়ে নিয়ে বসবাস করাকালীন রহিম বক্স’র ছেলে সিরাজুল ইসলাম, আরিজুল ইসলাম ও মফিজুল ইসলাম বিভিন্ন সময়ে বাড়ির উঠোনের জমি জোর দখলের চেষ্টা চালাতে থাকে। উঠোনের ওই জমির মালিক ননদের ছেলে রেজাউল ইসলাম মানবিক কারনে তা ভোগ দখলের জন্য সুফিয়া বেগম এবং তার মেয়েদের দেন।
সুফিয়া বেগম বলেন, মৃত স্বামীর রেখে যাওয়া ভিটেবাড়ি এবং ননদের ছেলের দেয়া সামন্য জমি নিয়ে সেখানে দুই মেয়ে নিয়ে অমানবিক বসবাস করছি। কিন্তু এরইমধ্যে রহিম বক্স’র ছেলেরা উঠোনের ওই জমিটুকু দখল করে নিয়ে আমাদের তাড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা শুরু করে। এনিয়ে গ্রামে এবং তালা থানায় দুইবার সালিস হলেও সালীসের রায় অবমাননা করে সিরাজুল, আরিজুল ও মফিজুল ইসলাম। বুধবার সকালে তারা উঠোন দখল করে সেখানে পাকা বসতঘর নির্মানের কাজ শুরু করে। এসময় গ্রামের লোকজন এবং ওই জমির মালিক রেজাউল ইসলাম তাতে বাঁধা দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সিরাজুল গং নিজেদের ঘরের পিছনের বেড়া প্রকাশ্যে নিজেরা ভেঙ্গে প্রতিপক্ষদের মামলায় জড়ানোর হুমকি দেয়। বর্তমানে দরিদ্র ও অসহায় সুফিয়া বেগম এবং তার এক প্রতিবন্ধী মেয়ে সহ বাড়ির সকলে আতংকের মধ্যে রয়েছে। এব্যাপারে তালা থানার এএসআই মো. জাকির হোসেন জানান, ঘটনার সংবাদ পেয়ে বুধবার বিকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয় এবং উভয় পক্ষকে শান্ত থাকার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে উভয় পক্ষকে নিয়ে থানায় আবারও বসাবসি করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ