1. mirzaromeohridoy@gmail.com : Kazi Sakib : Kazi Sakib
  2. hridoysmedia@gmail.com : news :
শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ০৭:৩৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
অসহায় মানুষের মাঝে ১ মাসের খাদ্য ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ সাতক্ষীরায় নতুন জেলা প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেনে মোহাম্মদ হুমায়ন কবির সদর উপজেলা চেয়ারম্যানকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানাল সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশন পাইকগাছায় ২য় দিনে ৬ মামলায় জরিমানা; মটর সাইকেল জব্দ প্রাকৃতিক উৎস থেকে চিংড়ি পোনা আহরণ করায় ৩ জনকে জরিমানা পাইকগাছায় আ.লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত আ.লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন নলতায় আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত দেবহাটায় দেড় হাজার বয়স্ক, বিধবা ও প্রতিবন্ধীর ভাতার টাকা উধাও! সাতক্ষীরায় কঠোর লকডাউনের মধ্যেও সড়কে চাঁদাবাজির অভিযোগ

পাইকগাছা পৌর সদরে ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড; ১০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি

  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৩ মার্চ, ২০২০
  • ১০৪ বার পড়া হয়েছে

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি : পাইকগাছা পৌর সদরের এক ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। সোমবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে অভিজাত রেস্টুরেন্টের পাশে মুন্না অফসেট প্রেসে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। বিদ্যুতের শর্ট সার্কিট থেকে অগ্নিকান্ডের সুত্রপাত বলে ধারনা করা হচ্ছে। প্রায় ১ ঘন্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসলেও এর মধ্যে প্রতিষ্ঠানের সমস্ত মালামাল পুড়ে প্রায় ১০ লক্ষাধীক টাকার ক্ষতি হয় বলে ব্যবসায়ী বায়েজিদ জানান। মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর, ওসি এমদাদুল হক শেখসহ জনপ্রতিনিধি ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ক্ষতিগ্রস্থ প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করেছেন। পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ড সরল গ্রামের মৃত শওকাত গাজীর ছেলে বায়েজিদ হোসেন বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে ঋণ নিয়ে পৌর সদরের অভিজাত রেস্টুরেন্টের পাশে জনৈক ব্যক্তির একটি ঘর ভাড়া নিয়ে প্রেসের ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। তার প্রতিষ্ঠানের নাম মুন্না অফসেট প্রেস। সোমবার রাত সাড়ে ৯ টার দিকে কাজ শেষে দোকান বন্ধ করে বায়েজিদ ও তার কর্মচারীরা বাড়ীতে যায়। পরে রাত সাড়ে ১০ টার দিকে বিদ্যুতের শর্ট সার্কিট থেকে তার দোকানে আগুন লেগে যায়। আগুনের লেলিহান শিখা দেখে অন্যান্য ব্যবসায়ীরা ছুটে আসে। এসময় উপস্থিত লোকজন দোকানের তালা ভেঙ্গে আগুন নেভানোর চেষ্ঠা করে। প্রায় ১ ঘন্টা চেষ্ঠার পর আগুন নিয়ন্ত্রনে আসে। অগ্নিকান্ড প্রসংগে বায়েজিদ জানান প্রতিদিনের ন্যয় রাত সাড়ে ৯ টার দিকে দোকান বন্ধ করে আমি বাড়ীতে যাই। এরপর আমি যখন শ্বশুরবাড়ীতে অবস্থান করি তখন মুঠোফোনে জানতে পারি আমার দোকানে আগুন লেগেছে। আমি এসে দেখি লোকজন আগুন নিয়ন্ত্রন করেছে তবে এর মধ্যে আমার দোকানের মেশিন, কম্পিউটার, প্রিন্টার, স্পোজার এবং কাগজসহ গুরুত্বপূর্ণ সব মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে প্রায় ১০ লক্ষাধীক টাকার অপুরনীয় ক্ষতি হয়েছে বলে ব্যবসায়ী বায়েজিদ জানান। অগ্নিকান্ডের ফলে এখন তাকে পথে বসার উপক্রম হয়েছে বলে সে জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ